banglanewspaper

রোযার প্রকৃত অর্থ হলো- আমাদের দেহের মাথা থেকে শুরু করে পায়ের তালু পর্যন্ত সব অঙ্গ-প্রত্যঙ্গকে অন্যায়-অপরাধ থেকে সংরক্ষণ করা। একটি কথার আমল ও প্রয়োগ যদি আমরা করতে পারি তাহলে পরিবার, সমাজের সব দুর্নীতি দূর হবে। আর তা হলো নিজের জন্য পছন্দনীয় ও অপছন্দনীয় জিনিস অন্যের জন্যও পছন্দ ও অপছন্দ করা। মানুষের ভেতরের ক্ষতিকারক দোষগুলো বর্জন করা আমাদের সবার জন্য আবশ্যক। তা না হলে আমাদের রোযা পূর্ণভাবে আদায় হবে না।

গিবত বা পরনিন্দা করা, প্রতারণা করা, অহঙ্কার করা, আত্মপ্রসাদ, হিংসা-বিদ্বেষ, নির্দয়তা, রিয়া বা লোক দেখানো কাজ, লোভ, ক্রোধ, কৃপণতা, অতিভোজনের লোভ, প্রবঞ্চনা, স্বার্থপরতা, মিথ্যা কথা, অশ্লীল কথা, ধোকাবাজি, চাঁদাবাজি, কুধারণা, কুপ্রবৃত্তি, কুপরামর্শ, অবৈধ পথে চলা।

উপরোক্ত দোষাগুলোর কারণে আমরা আজকে অধঃপতনে যাচ্ছি। ব্যক্তি চরিত্রের দোষ সমাজ চরিত্রকে কলুষিত করছে। কলুষিত করছে সারা জাতিকে। তাই জাতীয় জীবনকে কলুষমুক্ত করতে হলে ব্যক্তি চরিত্রের দোষগুলো নির্মূল করতে হবে।

রমজান আমাদের তাই শিক্ষা দেয় যে, সব খারাপ কাজগুলো থেকে দূরে থাকতে। তবেই আমাদের ইবাদত কবুল হবে, আমরা উন্নত হব ও আদর্শ হব।

তথ্যসূত্র : মাওলানা হারুনুর রশিদের রমজানে করণীয় ও বর্জনীয় গ্রন্থ

ট্যাগ: bdnewshour24