banglanewspaper

নীলফামারীতে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন থেকে ২৮ ইটভাটা শ্রমিকের হদিস মিলছে না। এ ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে প্রায় ৮টি গ্রামে।
 
সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, মঙ্গলবার সকালে নীলফামারীর সৈয়দপুর থানা পুলিশের হাতে আটক হয় ৪৪ জন ভাটা শ্রমিক। তারা গাজীপুর থেকে ট্রাকের ওপরে ত্রিপলের ভেতরে বিশেষ কায়দায় নীলফামারী জেলা সদরে আসছিল। পরে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে বিকেল ৪টার দিকে আটক ভাটা শ্রমিকদের তাদের নিজ গ্রাম নীলফামারী সদরের সোনারায় ইউনিয়নের সোনারায় ও চকদুবলিয়া গ্রামের দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১৪দিন কোয়ারেন্টাইনে রাখেন জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। 

কিন্তু সন্ধ্যার পরপরই স্থানীয়রা দেখতে পান কোয়ারেন্টাইনে থেকে ২৮ শ্রমিক উধাও। তাৎক্ষণিক বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান ও থানাকে অবহিত করা হয়। মুহূর্তে চারদিকে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। 

এদিকে আজ বুধবার দুপুর ২টা পর্যন্ত থানা পুলিশ স্থানীয় গ্রাম্য পুলিশের সহযোগিতায় পালিয়ে যাওয়া ১৭  শ্রমিককে উদ্ধার করে পূনরায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রেখেছেন বলে জানা গেছে।  

সোনারায় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল জানান, কোয়ারেন্টাইনে থাকা শ্রমিকদের দেখভালের জন্য সংশ্লিষ্ট ওর্য়াডের সদস্য ও গ্রাম পুলিশ নিয়োজিত থাকার পরেও কিভাবে এঘটনাটি ঘটল তা তদন্ত করা হচ্ছে। 

ট্যাগ: bdnewshour24