banglanewspaper

বিভিন্ন সময় বোরকা ও হিজাব পরায় ইউরোপ-আমেরিকার মতো দেশগুলোতে মুসলিম নারীদের হয়রানির শিকার হতে হয়। কোথাও কোথাও হিজাব পরিহিতদের ওপর হামলা চালানোর মতো ঘটনাও নজরে আসে। কিন্তু বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে এবার হিজাবকেই প্রাধান্য দিচ্ছে গবেষকরা। বলা হচ্ছে, ইসলামের দৃষ্টিতে নারীর জন্য অপরিহার্য এই পোশাকটি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সহায়তা করে।

এ নিয়ে গবেষণা চালিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের নর্থওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির ধর্ম ও যৌন বিভাগের অন্যতম গবেষক আনাবেলা। গবেষণার বিষয় মুসলিম হিজাবি নারী। অর্থাৎ হিজাব পরা মুসলিম নারীদের নিয়ে তিনি গবেষণা চালান। 

মার্কিন এই নারী গবেষক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের মাত্র চেহারা ঢাকা শুরু করেছে। সেখানকার স্থানীয় ও ফেডারেল নেতারা তাদের অবস্থান পরিবর্তন করেছে। এখন তারাও এটি মনে করছে যে, হিজাব করোনা ভাইরাস ঠেকাতে দারুণভাবে সহায়তা করে।

গবেষক আনাবেলা বলেন, ‘আমি আমার একটি বইয়ের জন্য আমেরিকা ও ব্রিটেনের ৩৮ জন মুসলিম হিজাব পরা নারীর সাক্ষাৎকার গ্রহণ করি। যাদের অধিকাংশই আমেরিকা ও ব্রিটেনের অধিবাসী। যাদের সাক্ষাৎকার নিয়েছিলাম তারা পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ ও বিভিন্ন ধর্ম থেকে আগমন করেছে।’

তিনি বলেন, ‘ওই ৩৮ নারীর অনেকেই আগে ছিলেন ইহুদি, কেউ খ্রিষ্টান কিংবা নাস্তিক।’ 

সাক্ষাৎকার দেয়া ওই নারীরা আনাবেলাকে জানিয়েছেন, ইসলামের অনুশাসন মেনে চলতে হিজাব সহযোগিতা করে এবং নারীদের মহান সৃষ্টিকর্তার নৈকট্যশীল করে। যদিও হিজাব পরার কারণে বিভিন্ন সময় তাদেরকে ইসলামবিরোধী ও বর্ণবাদীদের রোষানলে পড়তে হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24