banglanewspaper

পবিত্র মাহে রমজানের সপ্তম দিন আজ। সকাল থেকেই আকাশের মন খারাপ। সারা দেশের পাশাপাশি রাজধানীতে কিছুটা বৃষ্টি ঝড়িয়ে শান্ত হয়েছে আকাশ। তবে মুখ গোমরা ছাড়েনি। আকাশের মেঘের ছটা মনে করিয়ে দিচ্ছে সাময়িক বিরতি দিয়ে আবার ভাড়ি বৃষ্টি ঝড়াতে পারে যে কোন সময়। দেশের সব বিভাগেই ঝোড়ো হাওয়া ও বিজলি চমকানোসহ মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। বৃষ্টিপাতের এ ধারা কয়েকদিন অব্যাহত থাকতে পারে।

আবহাওয়া অফিস বলছে, এই বৃষ্টি আরও কয়েকদিন স্থায়ী হতে পারে। তারপরই হয়তো দেখা যাবে স্বতঃস্ফূর্ত রোদের ঝলকানি। তবে রোদ দুদিন স্থায়ী হয়ে আবারও বৃষ্টি নামার সম্ভাবনা রয়েছে বলেও জানিয়েছেন তারা।

তাদের মতে, আজকে দিনের মতো আগামীকাল দিনটিও বৃষ্টি দিয়েই শুরু হতে হতে পারে। বেলা বাড়লে মাঝে মাঝে রোদের দেখাও পাওয়া যাবে। তবে বিকেল হতে না হতেই আবারও মেঘে ঢাকবে আকাশ। বৃষ্টি হোক বা না হোক, রাতের তাপমাত্রা থাকবে শীতল।

শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গায়; রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়া ও বিজলি চমকানোসহ মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী বর্ষণসহ বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে মাদারীপুরে ৫২ মিলিমিটার। বৃহস্পতিবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল সাতক্ষীরা ও যশোরে ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজ দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা টাঙ্গাইল ও রাঙ্গামাটি ২১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

ঢাকায় বৃহস্পতিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং আজকের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৩ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদফতরের পূর্বাভাস বলছে, আজও দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হতে পারে। রাজধানীতেও সারাদিন ধরে ঝরতে পারে বৃষ্টি। এছাড়াও দেশের সবখানেই আজ বৃষ্টি ঝরবে। কোথাও কোথাও দমকা হাওয়া বইবে, বজ্রপাতও হবে।

শুক্রবারে আবহাওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আজ বরিশাল, চট্টগ্রাম ও খুলনা বিভাগের অনেক স্থানে বৃষ্টি হতে পারে। রাজধানীসহ দেশের অন্যান্য স্থানে সামান্য বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে।

ট্যাগ: bdnewshour24