banglanewspaper

দেশের বিভিন্ন স্থানে যখন করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অনেক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা, কর্মচারিরা দায়িত্ব এড়িয়ে চলছেন কিন্তু ঝুঁকি জেনেও ঠাকুরগাঁও জেলা পুলিশ সেবা দিয়ে যাচ্ছে। জেলার বিভিন্ন স্থানে মানুষ যখন গভীর নিদ্রায় আচ্ছন্ন তখন অতন্দ্র প্রহরী হয়ে পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যরা মানুষের সুরক্ষায় নিয়োজিত। 

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) গভীর রাতে জেলার বিভিন্ন স্থানে গিয়ে এমনই চিত্র দেখা যায়। ঠাকুরগাঁওয়ের প্রবেশদ্বার ২৯ মাইল চেকপোষ্টে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তানভিরুল ইসলাম, ওসি তদন্ত গোলাম মর্তূজাসহ সকল পুলিশ সদস্যকে সেবা দিতে দেখা যায়। যে সমস্ত গাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ে ঢুকছে সেগুলোতে নিজেরাই জীবাণুনাশক স্প্রে করে চেক করছেন। 

সম্প্রতি ঢাকা, নারায়নগঞ্জ, গাজীপুর থেকে পণ্যবাহি ট্রাক, কাভার্ডভ্যান, মাইক্রোবাস ও মিনি পিকআপ, এম্বুলেন্সে করে যাত্রীরা আসে। যাদের শরীরে পরবর্তীতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া যায়। ফলে পুলিশ সদস্যরা আরও তৎপর হয়। ইতো মধ্যে পীরগঞ্জ থানার এক পুলিশ সদস্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।  এ নিয়ে জেলায় মোট ১৬ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। 

ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান বলেন, পুলিশের দায়িত্ব জনগণকে সেবা দেয়া,  সেই দায়িত্বের জায়গা থেকে পুলিশ সদস্যরা অতন্দ্র প্রহরী হয়ে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। 


উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (১১ এপ্রিল) ঠাকুরগাঁওয়ে করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ায় পুরো জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করে জেলা প্রশাসন। এরই প্রেক্ষিতে জেলার বিভিন্ন প্রবেশদ্বারে বসানো হয় চেকপোষ্ট। 

ট্যাগ: bdnewshour24