banglanewspaper

প্রায় ১৩ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে এখনও পর্যন্ত ২৩টি শতক হাঁকিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের বাঁহাতি ওপেনার তামিম ইকবাল। যার প্রথমটি এসেছিল ২০০৮ সালে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আর শেষটি গত মার্চে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে।

 

মাঝের ২১ সেঞ্চুরিতে অনেকবারই লম্বা সময়ের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে এই ম্যাজিক্যাল ফিগার ছোঁয়ার জন্য। যেমন ২০১০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরির পর আবার তিন অঙ্ক ছুঁতে অপেক্ষা করতে হয়েছিলো তিন বছর। অর্থাৎ প্রায় তিন বছরের সেঞ্চুরিশূন্য ছিলেন দেশসেরা এ ব্যাটসম্যানের।

 

তবে এই সেঞ্চুরিখরার চেয়েও তামিমের মনে দাগ কেঁটে আছে ছয় মাসের অন্য একটা সেঞ্চুরিবিহীন সময়। কেননা সেটার কারণ ছিলেন খোদ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা! আর এ গল্পটাও বেশ মজার। যা শুনিয়েছেন খোদ তামিম, সঙ্গে ছিলেন মাশরাফিও।

 

একবার তামিমের সঙ্গে মতপার্থক্যের জেরে ড্রেসিংরুমের ভেতরেই মাশরাফি মার্কার দিয়ে লিখে দিয়েছিলেন, পরের ছয় মাস কোন সেঞ্চুরি করতে পারবেন না তামিম! কাকতালীয়ভাবে পরের ছয় মাস সত্যিই কোন সেঞ্চুরি করতে পারেননি। তাকে সেঞ্চুরির জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছিল ৬ মাস ৫ দিন!

 

সোমবার রাতে মাশরাফিকে নিয়ে করা ফেসবুক লাইভে এ ঘটনা উল্লেখ করে তামিম বলেন, ‘আমরা ড্রেসিংরুমে খেলোয়াড়রা মাশরাফি ভাইকে বাবা হিসেবেও চিনি। বাবা মানে হইলো, আলহামদুলিল্লাহ্‌! উনি যা বলে, যেটা বলে, কেমনে না কেমনে যেন হুবহু মিলে যায়। বিশেষ করে আমার ক্ষেত্রে একদম একশতে একশ।’

 

‘আল্লাহই জানে, আমি আপনার সঙ্গে বেয়াদবি করছিলাম না কী করছিলাম... আমার এখনও মনে আছে, আপনে মার্কার দিয়ে লিখে দিছিলেন, তুই পরবর্তী সেঞ্চুরি করবি ছয় মাস পর।’ মাশরাফি থামিয়ে মনে করিয়ে দেন, ‘ঠিক ছয় মাস তিনদিন (আসলে পাঁচদিন) পরই করছিলি!’

ট্যাগ: bdnewshour24