banglanewspaper

ব্যবসায়ীদের দাবির মুখে সরকার ১০ মে থেকে শপিংমল ও দোকানপাট খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ দিন দিন বাড়তে থাকায় ঈদ বাজারকে কেন্দ্র করেও বন্ধ থাকবে দেশের অত্যাধুনিক শপিং সেন্টার যমুনা ফিউচার পার্ক। মানুষের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

বুধবার (৬ মে) একথা জানা গেছে। যমুনা গ্রুপের দুটি গণমাধ্যমে এ নিয়ে সংবাদও পরিবেশন করা হয়।

এর আগে দেশের আরেক বৃহৎ শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপ তাদের শপিং কমপ্লেক্স ঈদের আগে না খোলার সিদ্ধান্ত নেয়।

যমুনার শপিং সেন্টারের কর্তৃপক্ষ জানায়, ঈদ বাজারে শপিং মলে ভিড়ে ব্যাপকভাবে করোনাভাইরাস সংক্রমিত হতে পারে। এই আশঙ্কা থেকেই ঈদকে ঘিরে শপিং মল না খোলার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তারা আরও জানায়, মানুষের জীবনের নিরাপত্তা সবার আগে। সবদিক বিবেচনা করে মার্কেটের দোকান মালিকদের সাথে আলোচনা করে মার্কেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। যমুনা গ্রুপ সবসময় মানুষের কল্যাণে কাজ করে। করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই নানাভাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে যমুনা গ্রুপ। কোরোনার প্রকোপ শুরুর পর প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ১০ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছে গ্রুপটি। এছাড়া সশস্ত্র বাহিনী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে কয়েক ধাপে সুরক্ষা সরঞ্জাম দিয়েছে যমুনা গ্রুপ।

আগামী ১০ মে থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে দেশের দোকানপাট ও শপিংমলগুলো খোলার ঘোষণা দেয় সরকার। তবে এসব শর্ত মেনে দোকানপাট খোলা রাখা অসম্ভব বলে মনে করছেন খোদ ব্যবসায়ীরা।

ট্যাগ: bdnewshour24