banglanewspaper

দেশে নিত্যপণ্যের প্রচুর স্টক রয়েছে। ফলে আগামী চার মাসেও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের কোনও সমস্যা হবে না বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

তিনি বলেছেন, ‘নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের যথেষ্ট স্টক আছে। আমরা আগে থেকেই নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য মজুদ করে রেখেছিলাম ফলে প্রচুর স্টক রয়ে গেছে। আরও চার মাসেও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের কোনো সমস্যা হবে না। টিসিবিও পণ্য বিক্রিতে প্রস্তুত আছে। বিশেষ করে ছোলার প্রচুর মজুদ রয়েছে। যদিও আগামী রোজা পর্যন্ত এটি রাখা যাবে না, তারপরেও হয়তো অনেক পরিমাণ থেকে যাবে।

বৃহস্পতিবার (৭ মে) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে দেশের চলমান পরিস্থিতিতে ব্যবসা-বাণিজ্য বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

শনিবার (৯ মে) থেকে ২৫ টাকা কেজিতে পেঁয়াজ বিক্রি করবে সরকারি বিপণন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। এতদিন এই পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছিল ৩৫ টাকা কেজি।

মন্ত্রী বলেন, রফতানিকারক দেশগুলোকে চিঠি দিয়ে অনুরোধ করা হবে তারা যেন রফতানি আদেশ বাতিল না করে। ভারতের সঙ্গে পণ্য আমদানি-রফতানির জন্য আরও ৪টি ট্রেনরুট খোলার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। খুব শিগগিরই এসব রুটে পণ্য আনা নেওয়া শুরু হবে। রুটগুলো হলো- হিলি, বিরল, বেনাপোল এবং দর্শনা।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আদার ক্ষেত্রে বাজারে কিছু সমস্যা ছিল। কিন্তু চাপ সৃষ্টি করে তা সমাধান করেছে ভোক্তা অধিকার। তারা রমজানের প্রথম সপ্তাহ থেকেই বাজার তদারকি করছে। তারা জনগণের মাঝে মাস্কও বিতরণ করেছে। ৫০ হাজার মাস্ক দিয়েছিলাম তারা মানুষকে তা দিয়েছে। টিসিবি, ভোক্তা অধিকার ও মন্ত্রণালয় সার্বক্ষণিক কাজ করছে।’

মন্ত্রী আরও জানান, ভোক্তা অধিকার এখন পর্যন্ত ২ হাজার ২০০ জায়গায় ব্যবসায়ীদের জরিমানা করেছে। জরিমানা করা কিন্তু আমাদের উদ্দেশ্য না, তারপরও অসাধু ব্যবসায়ীদের কন্ট্রোল করার জন্য করতে হয়েছে। উপজেলা পর্যায়েও টিসিবির পণ্য গেছে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তারা কাজ করছে। ভোক্তা অধিকারের কর্মকর্তাদের ছুটি বাতিল হয়েছে, ২৪ ঘণ্টা কেউ না কেউ থাকছে।

ট্যাগ: bdnewshour24