banglanewspaper

করোনার এই কঠিন সময় শেষে আবার কখন চলচ্চিত্র জগৎ স্বাভাবিকতা ফিরবে, আবার যখন ফিরবে তখন রোজকার শুটিং, সিনেমা ব্যবসা কী সেই আগের মতো হতে পারবে? 

প্রত্যেকটি দেশের অর্থনীতির যে টালমাটাল দশা, তাতে কী এত দ্রুত সম্ভব হবে সেই বিগ বাজেটের সিনেমা ফের তৈরি করা? সেই নয়নাভিরাম সেটের পিছনে গাদা গাদা টাকা খরচ করা কি সম্ভব হবে?

এদিকে এই লকডাউনে বলিউড ভরসা খুঁজছে অনলাইন সাইটে। এই পরিস্থিতে কবে হল খুলবে আর মুভি রিলিজ হবে ঠিক নাই। হলে মানুষ আসবে কিনা সেটাও প্রশ্ন। মুভি বানিয়ে কতদিন ফেলে রাখবে, প্রযোজকদেরও তো চলতে হবে, কর্মচারীদের চালাতে হবে। তাই সেদিকেই ঝুঁকছে সবাই।

যেমন ‘মালাং’ নেটফ্লিক্সে মুক্তি দেওয়ার কথা রয়েছে। যদিও নেটফ্লিক্সের আনুষ্ঠানিক কোন ঘোষণা এখনো পাওয়া যায়নি। গতমাসেও এমন একটা গুঞ্জন উঠেছিল। 

কিন্তু বলিউডের আসছে দিনে বড় বাজেটের সিনেমাগুলো স্ট্রিমিং সাইটগুলোতে মুক্তি দেওয়ার তোড়জোর চলছে। রাঘব লরেন্স পরিচালিত এবং অক্ষয় - কিয়ারা অভিনীত কাঞ্চানা এর রিমেক লক্ষী বোম্ব ডিজনি হটস্টারে জুনে রিলিজ পাবে সরাসরি। 

বলিউডের এই সময়ের অন্যতম পরিচিত প্রযোজক দীনেশ ভিজান এর রেডি হওয়া সব সিনেমা রিলিজ পাবে অনলাইনে। আর এটা যদি হিট হয়ে যায় তাহলে তো কথাই নেই। সবচেয়ে বড় কথা, রিলিজ না দিয়েও উপাই নাই। যে অবস্থা তাতে এই বছর কেউ হলে যাবে সিনেমা দেখতে এটা ভাবাই ভুল।

সালমান খানের রাধে ২৫০ কোটি রূপিতে অনলাইন স্ট্রিমিং প্লাটফর্মে ডিরেক্ট রিলিজের ডিল হয়েছে বলে একটা গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। এরকম কোনো কিছু হয়নি। সিনেমার শ্যুটিংই এখনো বাকি। তবে রাধে টিম জানিয়েছে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে যদি বেশি সময় নেয় তবে তারাও সিনেমাটা কমপ্লিট করে অনলাইন প্লাটফর্মে সরাসরি রিলিজ দেয়াতে আগ্রহী।

ছোটো সিনেমার পাশাপাশি অনেক বড় সিনেমাও ডিরেক্ট অনলাইন স্ট্রিমিং প্লাটফর্মে রিলিজের ডিলে যেতে পারে।

অনেকেরই প্রশ্ন সিনেমা অনলাইনে ডিরেক্ট রিলিজ দিয়ে কত লাভ হয়, এর থেকেও বড় বিষয় হচ্ছে এটা হলো স্ট্রিমিং প্লাটফর্মের ব্র‍্যান্ডিং, সাবস্ক্রাইবার বাড়ানোর জন্য ইনভেস্ট করা। ডিজনি, নেটফ্লিক্স, অ্যামাজন এরা বিলিয়ন ডলার নিয়ে বসে আছে ইনভেস্ট এর জন্য। কারন ভবিষ্যতে এগুলা অনেক বড় প্লাটফর্ম হবে সিনেমা দেখার। 

সব প্রযোজককে সবচেয়ে বেশি অফার করতেছে ডিজনি। কারন তারা নতুন এসেছে। সেক্ষেত্রে প্রযোজকরা তাদের লাভ রেখে একটা দামে বিক্রি করে দেয়। স্ট্রিমিং প্লাটফর্ম এর আয় হয় তাদের দর্শকদের সাবস্ক্রিপশন ফী দিয়ে। কিছু সাইট বিজ্ঞাপনও পায়।

ট্যাগ: bdnewshour24