banglanewspaper

দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ আন্দামান সাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি ঘনীভূত হয়ে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ আন্দামান সাগর এলাকায় নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। নিম্নচাপটি গভীর নিম্নচাপে রূপ নিলে বড় কোনও ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতের মুখে পড়তে হতে পারে বাংলাদেশকে।

শুক্রবার (১৫ মে) আবহাওয়া অধিদফতরের বুলেটিনে জানানো হয়েছে, নিম্নচাপটি আরও ঘনীভূত হতে পারে।

বুলেটিনে জানানো হয়, নিম্নচাপটি শুক্রবার দুপুর ১২টা নাগাদ চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর থেকে ১ হাজার ৩৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ২৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৩৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ২৯০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থান করছিল। যেটি আরও ঘনীভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সাধারণত চারটি ধাপ পার করে লঘুচাপ ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয়। লঘুচাপ থেকে সুস্পষ্ট লঘুচাপ, এরপর এটি নিম্নচাপে রূপ নেবে। নিম্নচাপ থেকে গভীর নিম্নচাপে রূপ নিয়ে তৈরি হবে ঘূর্ণিঝড়।

নিম্নচাপটি কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। নিম্নচাপ কেন্দ্রের কাছে সাগর উত্তাল হয়ে উঠছে।

এরইমধ্যে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ১ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আজ আবহাওয়া অধিদফতরের বুলেটিনে জানানো হয়েছে, ঢাকা, ময়মনসিংহ, সিলেট বিভাগের কিছু জায়গা, রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়া বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

তবে খুলনা বিভাগের মাদারীপুর, রাঙামাটি, রাজশাহী, পাবনা, বরিশাল ও পটুয়াখালীর ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া তাপপ্রবাহ কিছুটা হ্রাস পেতে পারে।

এদিকে লঘুচাপের কারণে দুদিন আগেই প্রতিবেশী দেশ ভারতের কেরালা রাজ্যের অনেক জেলায় ‘ইয়েলো অ্যালার্ট’ জারি করা হয়েছিল। দেশটির আবহাওয়া অধিদফতর (আইএমডি) জানিয়েছে, কেরালা রাজ্যটি ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’র গতিপথে সরাসরি না হলেও প্রবল ঝড়ের প্রভাবে সেখানে ১৫ মে থেকে ১৭ মে এই তিনদিন ব্যাপক ঝড়-বৃষ্টির হয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24