banglanewspaper

হযরত ওমর (রা.) ছিলেন ইসলামের দ্বিতীয় খলিফা এবং প্রধান সাহাবীদের অন্যতম। আবু বকরের মৃত্যুর পর তিনি দ্বিতীয় খলিফা হিসেবে দায়িত্ব নেন। উমর ইসলামি আইনের একজন অভিজ্ঞ আইনজ্ঞ ছিলেন। ন্যায়ের পক্ষাবলম্বন করার কারণে তাকে আল ফারুক (সত্য মিথ্যার পার্থক্যকারী) উপাধি দেয়া হয়।

আমিরুল মুমিনিন উপাধিটি সর্বপ্রথম তার ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়েছে। এবার আমরা আলোচনা করবো প্রেসিডেন্ট থাকা অবস্থায় হযরত ওমরের একটি ঐতিহাসিক ঘটনা নিয়ে।

ঈদের আগের দিন প্রেসিডেন্ট উমরের (রাঃ) এর স্ত্রী নিজ বললেন- আমাদের জন্য ঈদের নতুন কাপড় না হলেও চলবে কিন্তু ছোট বাচ্চাটি ঈদের নতুন কাপড়ের জন্য কাঁদছে।

অর্ধ্ব জাহানের শাসক প্রেসিডেন্ট উমর (রাঃ) বললেন- আমার তো নতুন কাপড় কেনার সামর্থ্ নেই৷ পরে প্রেসিডেন্ট উমর (রাঃ) তার অর্থমন্ত্রী আবু উবাইদা (রাঃ) কে এক মাসের অগ্রিম বেতন দেয়ার জন্য চিঠি পাঠালেন।

যিনি সেই সময় প্রায় অর্ধেক পৃথিবী শাসন করছেন, তাঁর এ ধরণের চিঠি পেয়ে আবু উবাইদা (রাঃ) এর চোখে পানি এসে গেল। আবু উবাইদা (রাঃ) বাহককে টাকা না দিয়ে চিঠির উত্তরে লিখলেন

আমীরুল মুমিনীন !!
অগ্রিম বেতন বরাদ্দের জন্য দুটি বিষয়ে আপনাকে ফয়সালা দিতে হবে।
প্রথমতঃ আগামী মাস পর্যন্ত আপনি বেঁচে থাকবেন কি না?
দ্বিতীয়তঃ বেঁচে থাকলেও দেশের জনসাধারণ আপনাকে সেই মেয়াদ পর্যন্ত খিলাফতের দায়িত্বে বহাল রাখবে কিনা ?’

চিঠি পাঠ করে প্রেসিডেন্ট উমর (রাঃ) কোন প্রতি উত্তর তো করলেনই না, বরং এত কেঁদেছেন যে তাঁর চোখের পানিতে দাঁড়ি ভিজে গেলো। আর হাত তুলে আবু উবাইদার (রাঃ) জন্য দোয়া করলেন- একজন যোগ্য অর্থমন্ত্রী নির্বাচিত করতে পেরেছেন ভেবে।

ট্যাগ: bdnewshour24