banglanewspaper

করোনা ভাইরাসে বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। চীনের উহান থেকে গত ডিসেম্বরে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) ছড়িয়ে পড়ে বিশ্ব জুড়ে। এরপর চারমাস পেরোলেও নিয়ন্ত্রণের কোনও লক্ষণ নেই। যদিও এর ভ্যাকসিন আবিষ্কারে উঠে পড়ে লেগেছেন বিজ্ঞানীরা। ইতিমধ্যে এ ভাইরাসে গোটা বিশ্ব বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ভাইরাস মোকাবিলায় দেশে দেশে চলছে লকডাউন, জরুরি অবস্থাসহ নানা পদক্ষেপ। এখন পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা ৪৬ লাখের বেশি, মৃত্যু ছাড়িয়েছে ৩ লাখ, আর সুস্থ হয়েছে সাড়ে ১৭ লাখ।

মার্কিন জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত বিশ্বে করোনা আক্রান্ত হয়েছে ৪৬ লাখ ২৮ হাজার ৮২১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৯৯ হাজার ৪০৫ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১৭ লাখ ৫৯ হাজার ৭০১ জন। বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৮ হাজার ৬৫৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ৫৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বর্তমানে বিশ্বে ২৫ লাখ ৬০ হাজার ৪৬৬ জন শনাক্ত রোগী রয়েছে। তাদের মধ্যে ২৫ লাখ ১৫ হাজার ৪৫৯ জন চিকিৎসাধীন, যাদের অবস্থা স্থিতিশীল। আর ৪৫ হাজার ৭ জনের অবস্থা গুরুতর, যাদের অধিকাংশই আইসিউতে রয়েছে।

ভাইরাসটি চীন থেকে ছড়ালেও বর্তমানে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ১৪ লাখ ৮৪ হাজার ২৮৫, সুস্থ হয়েছে ৩ লাখ ২৭ হাজার ৭৫১, মারা গেছে ৮৮ হাজার ৫০৭ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু এবং আক্রান্ত যুক্তরাষ্ট্রে। 

আর যেসব দেশে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে, সেগুলো হলো- স্পেনে আক্রান্ত ২ লাখ ৭৪ হাজার ৩৬৭, সুস্থ হয়েছে ১ লাখ ৮৮ হাজার ৯৬৭, মারা গেছে ২৭ হাজার ৪৫৯ জন। রাশিয়ায় আক্রান্ত ২ লাখ ৬২ হাজার ৮৪৩, সুস্থ হয়েছে ৫৮ হাজার ২২৬, মারা গেছে ২ হাজার ৪১৮ জন। যুক্তরাজ্যে আক্রান্ত ২ লাখ ৩৬ হাজার ৭১১, সেখানে কর্তৃপক্ষ সুস্থতার সংখ্যা প্রকাশ করেনি, মারা গেছে ৩৩ হাজার ৯৯৮ জন। ইতালিতে আক্রান্ত ২ লাখ ২৩ হাজার ২৮৫, সুস্থ হয়েছে ১ লাখ ২০ হাজার ২০৫, মারা গেছে ৩১ হাজার ৬১০ জন। ব্রাজিলে আক্রান্ত ২ লাখ ২০ হাজার ২৯১, সুস্থ হয়েছে ৮৪ হাজার ৯৭০, মারা গেছে ১৪ হাজার ৯৬২ জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত ১ লাখ ৭৯ হাজার ৫০৬, সুস্থ হয়েছে ৬০ হাজার ৪৪৮, মারা গেছে ২৭ হাজার ৫২৯ জন। জার্মানিতে আক্রান্ত ১ লাখ ৭৫ হাজার ৬৯৯, সুস্থ হয়েছে ১ লাখ ৫১ হাজার ৭০০, মারা গেছে ৮ হাজার ১ জন। তুরস্কে আক্রান্ত ১ লাখ ৪৬ হাজার ৪৫৭, সুস্থ হয়েছে ১ লাখ ৬ হাজার ১৩৩, মারা গেছে ৪ হাজার ৫৫ জন। ইরানে আক্রান্ত ১ লাখ ১৬ হাজার ৬৩৫, সুস্থ হয়েছে ৯০ হাজার ৮৩৬, মারা গেছে ৬ হাজার ৯০২ জন। পেরুতে আক্রান্ত ৮৪ হাজার ৪৯৫, সুস্থ হয়েছে ২৭ হাজার ১৪৭, মারা গেছে ২ হাজার ৩৯২ জন।
  
এ দিকে, করোনার উৎপত্তিস্থল চীনে আক্রান্ত ৮২ হাজার ৯৪১, সুস্থ হয়েছে ৭৮ হাজার ২১৯, মারা গেছে ৪ হাজার ৬৩৩ জন। কানাডাতে আক্রান্ত ৭৪ হাজার ৬১৩, সুস্থ হয়েছে ৩৬ হাজার ৮৯৫, মারা গেছে ৫ হাজার ৫৬২ জন। বেলজিয়ামে আক্রান্ত ৫৪ হাজার ৬৪৪, সুস্থ হয়েছে ১৪ হাজার ৩০১, মারা গেছে ৮ হাজার ৯৫৯ জন। মেক্সিকোতে আক্রান্ত ৪৫ হাজার ৩২, সুস্থ হয়েছে ৩০ হাজার ৪৫১, মারা গেছে ৪ হাজার ৭৬৭ জন।  নেদারল্যান্ডসে আক্রান্ত ৪৩ হাজার ৬৮১, সেখানে কর্তৃপক্ষ সুস্থতার সংখ্যা প্রকাশ করেনি, মারা গেছে ৫ হাজার ৬৪৩ জন। 

ট্যাগ: bdnewshour24