banglanewspaper

ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯০ হাজার পেরিয়ে গেল। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী, মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯০ হাজার ৯২৭। আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ১২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। 

ফলে প্রতিবেশী দেশ ভারতে করোনায় মৃত্যু সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৮৭২। তবে এ পর্যন্ত মোট ৩৪ হাজারেরও বেশি মানুষ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন।

আজ রবিবার শেষ হচ্ছে তৃতীয় দফার লকডাউন। ভারতের অর্থনীতির চাকাকে সচল রাখতে এবং সেই সঙ্গে করোনার সামগ্রিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে ইতিমধ্যেই বেশ কিছু ক্ষেত্রে ছাড়ের কথা ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। পাশাপাশি করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে কেন্দ্রের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে রাজ্যগুলোও নানা পদক্ষেপ করছে।

ভারতে, করোনার সংক্রমণের শুরু থেকেই সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতি মহারাষ্ট্রের। তা সে সংক্রমণের দিক থেকেই হোক বা করোনায় মৃত্যু সংখ্যায়। সে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের এক-তৃতীয়াংশই মহারাষ্ট্রের।

সম্প্রতি দিল্লি এইমসের ডিরেক্টর রণদীপ গুলেরিয়া পূর্বাভাস দিয়েছিলেন, ভারতে জুন-জুলাইয়ে করোনা সংক্রমণ শিখরে পৌঁছবে। অভিজ্ঞ চিকিৎসকের আশঙ্কা যে অমূলক নয়, তার প্রমাণ মিলল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সূত্রে পাওয়া একটি পরিসংখ্যান-রিপোর্টে৷ পুরো ভারতে করোনা-পরিস্থিতি বিচার করে এটি তৈরি করেছেন দেশ-বিদেশের বিশিষ্ট চিকিৎসাবিজ্ঞানীরা।

সেখানেও ভারতে করোনার তীব্রতা জুলাই-আগষ্টে চরমে পৌঁছনোর পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে৷ 

সূত্রের খবর, ১৫ অগস্টের মধ্যে দেশে কোভিড-১৯-এ আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ৭৫ লক্ষে পৌঁছতে পারে বলে আশঙ্কা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে জড়িত বিশেষজ্ঞদের। 

ট্যাগ: bdnewshour24