banglanewspaper

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন নাসির হোসেন। ইনিংসের শেষ দিকে কার্যকর ব্যাটিং; এ ছাড়া দুর্দান্ত ফিল্ডিংয়ের মাঝে কখনো বোলিংয়েও সাফল্য এনে দিতেন দলকে। নামের পাশে মি. ফিনিশার খ্যাতি জোড়ার পরও এ তারকা চলে গেছেন দলছুটদের কাতারে। জড়িয়েছেন নানা শৃঙ্খলা বিরোধী কাজে, সঙ্গে ছিল ফর্মহীনতা। মাঝে ছিল পায়ের ইনজুরি। এসব কারণে দীর্ঘদিন ধরে জাতীয় দলে ডাক পাচ্ছেন না নাসির হোসেন।

নাসির জানান, জাতীয় দল থেকে বের হওয়ার পর কেউ তার খোঁজ নেয়নি, একমাত্র সাকিব ছাড়া। এক ফেসবুক লাইভে তিনি বলেন, ‘আমি যখন জাতীয় দল থেকে প্রথম বাদ পড়লাম। জাতীয় দলে আমার অনেক ফ্রেন্ড আছে, আমরা বিকেএসপিতে এক সঙ্গে পড়ালেখা করেছি, একই রুমে ছিলাম, খুব ভালো ফ্রেন্ড। জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ার পর কারও ফোন পাইনি। আমি অনেকেরই ফোন আশা করেছিলাম। আমাকে কেউ ফোন দেয়নি। আমাকে একজন ফোন দিয়েছিল, সেটা হচ্ছে সাকিব ভাই।’

বাংলাদেশের জার্সি গায়ে নাসির হোসেনের ওয়ানডেতে অভিষেক হয় ২০১১ সালের আগস্টে। একই বছরের অক্টোবরে অভিষেক হয় টেস্ট ও টি-টোয়েন্টিতে। সর্বশেষ খেলেছেন ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। তিনি এখন পর্যন্ত ১৯ টেস্টে ৪৪২, ৬৫ ওয়ানডেতে ৯৮৮ ও ৩১ টি-টোয়েন্টিতে ২৬২ রান করেছেন।

জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া নিয়ে সাকিব তাকে আশা দেখিয়েছেন। নাসির বলেন,  ‘তিনি কল দিয়েছিলেন শুধু বলতে যে, মন খারাপ করিস না, আবার ভালো খেলে কামব্যাক করবি। এই ফোনেই তিনি আমার চোখে উপরের লেভেলে চলে গেছেন। সাকিব ভাইয়ের সাথে আমার সব সময় কথা হয়, আমরা টুকটাক সব কথাই শেয়ার করি। সাকিব ভাইও শেয়ার করে আমিও করি।’

নাসিরের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ সব বানোয়াট উল্লেখ করে তিনি জানান, এগুলো তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার। ‘আমাকে নিয়ে যেটা হয়েছে, মানুষ আমাকে নিয়ে বেশি গসিপ করা শুরু করেছে। আমি যদি তিল করি মানুষ এটাকে তাল বানায়। কিছু কিছু ইউটিউবার আছে আমার নাম বেঁচে তারা টাকা কামাই করছে। কিছু হলেই তারা এমনভাবে নিউজটা করে, কি না কি হয়ে গেছে। আল্লাহ সবাইকে হেদায়েত দিক’-বলছিলেন নাসির।

নাসির জানান, তিনি কখনো অনুশীলনে দুই মিনিট দেরি করে আসেননি। তিনি বলেন, ‘আপনি আমাকে একদিন দেখান আমি সুশৃংখল ছিলাম না। আমার ব্যক্তিগত জীবন আছে। এমন না যে খেলা চলছে, আমি সারা রাত ঘুরি। আমার মনে হয় না জাতীয় দলের খেলা থাকা অবস্থায়, অনুশীলন থাকা অবস্থায় কিছু করিনি। কেউ বলতে পারবে না আমি কোনোদিন জাতীয় দলের অনুশীলন ফাঁকি দিয়েছি। কেউ বলতে পারবে না আমি অনুশীলনে এক মিনিট দেরি করে আসছি।’

ট্যাগ: bdnewshour24