banglanewspaper

করোনার কারণে সব ধরনের ক্রিকেট বন্ধ প্রায় সবগুলো ক্রিকেট খেলুড়ে দেশেই। যদিও আইসিসির টেস্ট প্লেইং দেশগুলোর মধ্যে করোনা  ভাইরাস মোটামুটি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পেরেছে শ্রীলঙ্কা। যে কারণে, আগামী জুলাইয়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ আয়োজন করতে চায় বলে সম্প্রতি নিজেদের অবস্থান জানিয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলে ডি সিলভা। সিরিজ আয়োজনের সব প্রস্তুতি তারা গ্রহণ করেছে বলেও জানিয়েছে।

কিন্তু শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড চাইলেই কি আর সব হবে? বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও তো (বিসিবি) চাইতে হবে। বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন আজ এক অনুষ্ঠানে এই মনোবাভাবই ব্যক্ত করেছেন। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, শ্রীলঙ্কা চাইলেই যে সিরিজটা অনুষ্ঠিত হয়ে যাবে, তার কোনো কারণ নেই।

করোনার কারণে অসহায় এবং দুঃস্থ ক্রীড়াবিদদের মাঝে সহযোগিতার চেক তুলে দেয়ার জন্য বুধবার জাতীয় ক্রীড়া পরিষদে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপির সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন। সেখানেই তিনি, কবে আবার মাঠের খেলা শুরু হবে তা নিয়ে ঘোর অনিশ্চয়তার কথা জানান।

বিসিবি সভাপতি নাজমুল বলেন, ‘দেখুন, তারা (শ্রীলঙ্কা) আয়োজন করতে চাইলেই তো হলো না। আমরা পাঠাতে (দল) পারব কি-না, তাও তো দেখতে হবে। আমাদের খেলোয়াড়দের পাঠানো ঠিক হবে কি না এই মুহূর্তে, কোথায় থাকবে, কী করবে- এগুলো সহজ সিদ্ধান্ত নয়।’

আপাতত কোনো দেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ নিয়ে কোনো উদ্যোগ না নিয়ে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে নজর দিবে বিসিবি। পাপন বলেন, ‘আমরা অন্যদের পর্যবেক্ষণ করব। আইসিসি কী করে, এসিসি কী করে। অন্য দেশগুলো কী করছে। এখন পর্যন্ত কেউ নির্দিষ্ট তারিখ দিয়ে বলতে পারেনি খেলা কবে হবে। আমরাই এক্ষেত্রে প্রথম হব, এটা ভাবা ঠিক নয়।’

কোভিড-১৯ ভাইরাসে এ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কায় আক্রান্ত হয়েছে ১০০৯ জন। মৃত্যু কেবল ৯ জনের। এখন হয়তো সেখানকার পরিস্থিতি ভালো। কিন্তু একমাস পর কি হবে তা বলা মুস্কিল। বিসিবি প্রধান বলেন, ‘একটা জায়গা এখন ভালো আছে, একমাস পরে দেখা গেল, আবার হচ্ছে (করোনাভাইরাস) ওখানে। এটা তো বলা যাচ্ছে না শেষ হবে কোথায় বা কখন কী পরিস্থিতি (তৈরি হবে)।’

আইসিসির এফটিপি অনুসারে, আগামী জুলাইয়ে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে তিন টেস্টের সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কায় যাওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশের।

ট্যাগ: bdnewshour24