banglanewspaper

অবশেষে শঙ্কাই সত্যি হতে যাচ্ছে! স্থগিতই হতে যাচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। অস্ট্রেলিয়ায় আগামী ১৮ অক্টোবর থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত হওয়ার কথা ছিল বিশ্বকাপটি। তবে ‘টাইমস অব ইন্ডিয়া'র প্রতিবেদনে এসেছে, আগামী সপ্তাহেই বিশ্বকাপ স্থগিতের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবে আইসিসি।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, টেলিকনফারেন্সে সদস্য দেশগুলোর সঙ্গে বসে আগামী সপ্তাহেই আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্বকাপ স্থগিত করার ঘোষণা দেবে আইসিসি। কেননা করোনার কারণে ১৬ দলের এই টুর্নামেন্টটি অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে আয়োজন করার মতো পরিস্থিতি এখন নেই।

করোনার বিস্তার ঠেকাতে অস্ট্রেলিয়া সরকার মধ্য সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আন্তর্জাতিক সীমান্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আগেই। তারপর যারা অস্ট্রেলিয়ায় যাবেন, তাদেরও দুই সপ্তাহের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। আরও অনেক বিধি নিষেধের ব্যাপার আছে। তাই শিডিউল অনুযায়ী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে।

আইসিসি বরং কয়েকটি বিকল্প ভাবছে। একটি হলো, পরের বছরে বিশ্বকাপটি নিয়ে যাওয়া। অর্থাৎ অস্ট্রেলিয়ায় আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি-মার্চের দিকে স্থগিত এই আসরটি আয়োজন করা যায় কিনা, সেটি নিয়েই সদস্যদের সঙ্গে কথা বলবে আইসিসি।

অথবা আয়োজক বদলবদলি করা। ২০২১ সালে ভারতে যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটি হওয়ার কথা সেটি আয়োজন করবে অস্ট্রেলিয়া, সেক্ষেত্রে ভারতে বিশ্বকাপ হবে ২০২২ সালে। অথবা তৃতীয় আরেকটি বিকল্প হলো, ভারতে ২০২১ সালেই বিশ্বকাপ হবে, অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপ আয়োজন করবে ২০২২ সালে।

আইসিসির বিশ্বকাপ স্থগিতের ঘোষণা আসলেই পথ পরিষ্কার হয়ে যাবে আইপিএলের। ২০২০ সালের আইপিএল স্থগিত আছে সেই মার্চ থেকে। অক্টোবর-নভেম্বরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ না হলে সেই জায়গায় আইপিএল আয়োজন করার সুযোগ বের হবে।

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) প্রধান নির্বাহী রাহুল জহুরি জানিয়েছেন, বর্ষা মৌসুমের পরই ক্রিকেটীয় কার্যক্রম শুরু করার অনুমোদন দেয়া হবে দেশটিতে। এদিকে আগস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজও ব্যাপারে কথা বলছে ভারত।

ট্যাগ: bdnewshour24