banglanewspaper

আসছে ঈদুল ফিতরে সবাইকে বিনোদন স্পটে ঘুরে না বেড়িয়ে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ানের (র‌্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন।

তিনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতির কারণে এবছর আমরা ভিন্ন মাত্রায় ঈদ করতে যাচ্ছি। নিজেরা প্রয়োজন ছাড়া যেন বাইরে না যাই, ঘরেই থাকি। বেঁচে থাকলে সবাই মিলে আবারও জমজমাট ঈদ করবো।’

শুক্রবার (২২ মে) ঈদুল ফিতরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে অনলাইন বিফ্রিংয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ঈদের জামায়াত এবার মসজিদের হবে, সেখানে র‌্যাব কী ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেবে— মসজিদে হলেও একাধিক জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তাই আমাদের বেশি সময় দায়িত্ব পালন করতে হবে। তাছাড়া কিভাবে মানুষ মসজিদে যাবে, কিভাবে সামাজিক দূরত্বে থাকবে, লাইনে কিভাবে দাঁড়াবে— এসবকিছু ঠিক রাখতে কাজ করবে র‌্যাব। এক কথায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদের জামায়াতে নামাজ আদায় নিশ্চিত করতে আমাদের (র‌্যাব) কর্মী বাহিনীরা কাজ করবে।

র‌্যাবের নতুন এই মহাপরিচালক বলেন, দেশে করোনার প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ায় সরকার খোলা মাঠে কিংবা ঈদগাহে ঈদের জামাত আয়োজন না করার নির্দেশনা দিয়েছে। মসজিদেই একাধিকবার ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তবে সেটা অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে। এরই মধ্যে মসজিদগুলোতে নির্দেশনা পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ঈদ সামনে রেখে কোনো ধরনের হুমকি আছে কি না, জানতে চাইলে র‌্যাব ডিজি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, আশ্বস্ত করতে চাই, ঈদেও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকবে। কারণ, করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও র‌্যাব তাদের অপারেশন অব্যাহত রেখেছে। গোয়েন্দারা মাঠে কাজ করছে। তাই কোনো ধরনের হামলা বা হুমকি নেই।

ঈদের ঠিক আগে আগে ব্যক্তিগত গাড়িতে করে রাজধানীর বাইরে যাওয়া বা বাইরে থেকে রাজধানীতে প্রবেশ করার সিদ্ধান্তের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে র‌্যাব ডিজি বলেন, সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, আমরা পালন করছি। সরকার হয়তো যথাযথ সিদ্ধান্তই নিয়েছে। তবে গণপরিবহন তো চলছে না। যারাই ঢাকার বাইরে যাচ্ছেন বা আসছেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনেই আসছেন।

ঈদের পরে ছুটি শেষে যখন মানুষ ফিরবে, তখন আবার করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা নিয়ে জানতে চাইলে চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, সবাইকে আহ্বান করব, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ভালো মতো ফিরবেন। 

ট্যাগ: bdnewshour24