banglanewspaper

২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করেছিল ভারত। ভারত সরকারের কাছ থেকে আইসিসির কর মৌকুফের দায়িত্ব ছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই)। কিন্তু সেটি বিসিসিআই না করায়, প্রায় ২৫০ কোটি টাকার লোকসান হয়েছে আইসিসির। আগামী বছরেও যদি ভারত সরকারের ট্যাক্স অব্যাহতি না পাওয়া যায়, তবে আইসিসির ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়াতে পারে ৮ হাজার কোটি টাকা। তাই আগেভাগেই বিসিসিআইকে হুঁশিয়ার করে আইসিসি।

ইএসপিএনক্রিকইনফো এক প্রতিবেদনে আইসিসি জানায়, বিসিসিআই যদি ভারত সরকার থেকে ট্যাক্স অব্যাহতি না এনে দিতে পারে তবে আগামী বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ২০২৩ সালে ভারতে অনুষ্ঠেয় ওয়ানডে বিশ্বকাপও আয়োজন করতে পারবে না বিসিসিআই।

এমন বক্তব্যের পর মুখ খুলেছে বিসিসিআই। বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, 'আমরা আশা করব, আইসিসি এমন কোনো সিদ্ধান্ত নেবে না। টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ানডে বিশ্বকাপ আয়োজনের সুযোগ দিবে আমাদের। আশা করি ভিন্ন কোনো দেশে বিশ্বকাপ সরিয়ে নেয়ার মতো বোকামি আইসিসি করবে না।'

ভারত থেকে দুটি বিশ্বকাপ সরিয়ে নেয়ার যে হুমকি আইসিসি দিয়েছে, সেটি ক্রিকেটের প্রধান সংস্থার নয় বলে মনে করেন বিসিসিআইয়ের ওই কর্মকতা। তার মতে, এর পেছনে কারও ষড়যন্ত্র আছে, 'এটা আইসিসির ভাষ্য নয়। ঘাপটি মেরে থাকা কিছু অতি উৎসাহী সদস্য এই ষড়যন্ত্র করছে। আশা করি, এ ধরনের আত্মহত্যার শামিল কোনো সিদ্ধান্ত নিবে না তারা। যদি তারা এমন পদক্ষেপ গ্রহণই করে, তাহলে আমরা এ বিষয়টি হেসে উড়িয়ে দেব। আইসিসিকে ভবিষ্যতে কঠিন পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।'

ট্যাগ: bdnewshour24