banglanewspaper

করোনা ভাইরাসে ইউরোপে সর্বপ্রথম বিধ্বস্ত হয় ইতালি। দেশটিতে ৩৩ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণহানি হয়েছে, আর আক্রান্ত হয়েছে ২ লাখ ৩৩ হাজারের বেশি। কিন্তু সেখানে এখন মৃত্যু ও আক্রান্ত অনেকটাই কমে এসেছে। ফলে বিপর্যয় শেষে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে দেশটি। ইউরোপের অন্য দেশগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ স্বাভাবিক করতে সীমান্তও খুলে দিয়েছে ইতালি। একই সঙ্গে দেশটিতে প্রবেশ করার পর ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনের বাধ্যবাধকতাও তুলে নেয়া হয়েছে।

তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে করোনা দুমড়ে মুচড়ে দিয়েছে বিশ্বের অন্যতম ধনী দেশ ইতালিকে। ইতালিতে প্রায় দুই মাস পর মে মাসের মাঝামাঝিতে লকডাউন শিথিল করা হয়। বার ও সেলুনসহ অধিকাংশ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান সম্পূর্ণভাবে খোলার অনুমতি দেয়া হয় তখন। এবার সীমান্তও খুলে দিলো পর্যটনের জন্য জনপ্রিয় দেশটি। 

বিপর্যস্ত অর্থনীতিকে ঘুরিয়ে আনতে দেশটি চায় গ্রীষ্ম শুরুর হওয়ার আগেই তৈরি হয়ে যেতে। যাতে করে পর্যটকরা ফিরে আসে। সীমান্ত খুলে দেয়ায় ইউরোপের সব দেশ থেকেই ইতালিতে প্রবেশ করা যাবে। আবার অভ্যন্তরীণ ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞাও তুলে নেয়া হয়েছে। এখন থেকে ইতালির নাগরিকরা দেশের এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় চলাচল করতে পারবেন।   

ট্যাগ: bdnewshour24