banglanewspaper

দক্ষিণ আফ্রিকার অন্যতম অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠান অ্যামালগ্যামেটেড ব্যাংক অব সাউথ আফ্রিকা (এবিএসএ) চলতি বছরের জুলাই থেকে অর্থনৈতিক লেনদেনের ক্ষেত্রে চেকের ব্যবহার বন্ধ ঘোষণা করেছে। এর মধ্য দিয়ে দেশটিতে লেনদেনের ক্ষেত্রে এক সময়ের জনপ্রিয় ‘চেক যুগে’র অবসান ঘটতে যাচ্ছে। খবর বিজনেস ইনসাইডার।

দক্ষিণ আফ্রিকার রিজার্ভ ব্যাংকের এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, দেশটিতে এক দশকে লেনদেনে ব্যাংক চেকে’র ব্যবহার ৮০ শতাংশ কমে গেছে। তাই এবিএসএ সিদ্ধান্ত নিয়েছে চলতি মাসের পর আর কোনো চেক ইস্যু করবে না।

গত মাসে চেকের লিগ্যাল ভ্যালু কমিয়ে আনে দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাংকিং বিভাগ। শর্তানুসারে এখন ৫০ হাজার থেকে পাঁচ লাখ রেন্ড জমা রাখলেই গ্রাহক চেকবই ব্যবহার করতে পারেন।

এ ব্যাপারে এবিএসএ’র রিটেইল অ্যান্ড বিজনেস ব্যাংকিং বিভাগের ডেপুটি চিফ এক্সিকিউটিভ বংগিউই গাংগেনি বিজনেস ইনসাইডারকে জানান, ইলেক্ট্রনিক ট্রাঞ্জেকশন (ই-ব্যাংকিং) ও এটিএম কার্ডে লেনদেন অধিক জনপ্রিয় হয়ে ওঠায় দীর্ঘদিন ধরে ব্যাংক চেক বাণিজ্যিক আবেদন হারিয়েছে তাই তারা এরকম সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এবিএসএ ইতিমধ্যে তার সকল গ্রাহককে চিঠি দিয়ে জানিয়েছে, আগামী মাস থেকে তারা আর চেকে লেনদেনের অনুরোধ নিয়ে আসতে পারবেন না। এমনকি তাদেরকে লেনদেনের প্রমাণস্বরুপ কোনো হার্ডকপি রিসিপ্ট কপিও দেওয়া হবে না।

এছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকার চেক জালিয়াত চক্র অত্যন্ত শক্তিশালী হওয়ার কারণে চেকে অর্থনৈতিক লেনদেন ক্রমেই অনিরাপদ হয়ে উঠছিল। দেশটিতে ব্যাংক চেকে অর্থনৈতিক লেনদেন কমে যাওয়ার পেছনে অনিরাপত্তাও একটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ।

ট্যাগ: bdnewshour24