banglanewspaper

ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈলে মা’কে মারপিটের অভিযোগে ছেলেকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার (২২ জুন) শিবদিঘী পৌর মার্কেট এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। আটকের পর আজ  দুপুরে ঠাকুরগাঁও আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

এর আগে উপজেলার নন্দুয়ার ইউনিয়নের রামপুর গ্রামের মৃত রফিজ উদ্দীনের স্ত্রী আরোশা খাতুন (৫০)। তার ছেলে নাসিম উদ্দীন (৩৫) ও ছেলের স্ত্রী আর্জিনা বেগমের নামে মারপিট ও হুমকি প্রদানের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করে।

তবে মামলা দায়ের করলেও ছেলে কর্তৃক নির্যাতনের স্বীকার মা কোন ধরনের পুলিশী ভুমিকা না দেখে এসেছিলেন শিবদিঘী কাচাবাজরস্থ রাণীশংকৈল প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে। পুলিশকে মামলা দেওয়ার পরেও কেন ব্যবস্থা নিচ্ছে না? সেই অভিযোগ নিয়ে।

এদিকে হঠাৎ করেই প্রেসক্লাবে তার ছেলে চলে আসে। তার মা’কে জোর করে বাড়ি নিয়ে যেতে চায়। কিন্তু 
মা তার ছেলের সাথে বাড়ি যাবে না, জানিয়ে দিয়ে। প্রেস ক্লাব থেকে বাইরে বেরিয়ে আসলে। তার ছেলে নাসিম আবারও জোর করে টেনে-হেচড়ে বাড়ি নিয়ে যেতে চায়। অবশেষে তার মা রাস্তায় শুয়ে পড়লে। সে-সময় মাকে মারতে উদ্যত্ত হয় নাসিম। 

এ সময় নিজ মায়ের সাথে অস্বাভাবিক আচরণ ও মারতে উদ্যত্ত হওয়ায় স্থানীয় জনতা নাসিমের উপর ক্ষেপে যায়। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে স্থানীয় সংবাদকর্মিরা এগিয়ে আসলে তাদের ওপরও চড়াও হয় নাসিম। পরে সংবাদকর্মিরা পুলিশকে খবর দিলে। থানার এস আই তৌফিক সঙ্গীয় র্ফোস নিয়ে এসে তাকে আটক করে নিয়ে যায়। বর্তমানে ছেলে কর্তৃক নির্যাতিত মা আরোশা খাতুন স্থানীয় সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার এস আই দীপংকর মুঠোফোনে জানান, আরোশা খাতুন নিজ ছেলে ও ছেলের স্ত্রীর বিরুদ্ধে। তাকে মারপিট ও হুমকি প্রদানসহ নির্যাতনের অভিযোগ এনে। গত ২০ জুন থানায় মামলা দেয়। সেই মামলায় তার ছেলে নাসিম উদ্দীনকে সোমবার (২২জুন) আটক করে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24