banglanewspaper

চলমান করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে রোগীদের নিরলসভাবে চিকিৎসাসেবা দেয়া দেশের সব চিকিৎসকদের জন্য পর্যাপ্ত সুরক্ষাসামগ্রী নিশ্চিত করাসহ ৫ দফা দাবিতে কর্মবিরতি ও অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেছেন রাজধানীর বারডেম জেনারেল হাসপাতালের অস্থায়ী চিকিৎসকরা।  

রবিবার (২৮ জুন) সকাল ৮টা থেকে এ কর্মবিরতি ও অবস্থান কর্মসূচি শুরু হয়ে চলে দুপুর ২টা পর্যন্ত। 

৫ দফা দাবিসমূহের মধ্যে রয়েছে- বৈষম্যমূলক আরএমও পোস্ট বাতিল করে সব অস্থায়ীভাবে নিয়োগ হওয়া চিকিৎসকদের (আরএমও, এমও ও সহকারী রেজিস্ট্রার) চাকরি স্থায়ী করতে হবে; সব চিকিৎসকদের জন্য পর্যাপ্ত সুরক্ষাসামগ্রী নিশ্চিত ও চিকিৎসার সম্পূর্ণ দায়ভার বারডেমকে নিতে হবে; কর্তব্যরত চিকিৎসকদের এবং তাদের পরিবারের জন্য কোভিড-১৯ টেস্ট এবং চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে; রোগী ভর্তির পূর্বেই করোনা টেস্টের মাধ্যমে কোভিড-নন-কোভিড রোগীদের চিকিৎসার জন্য আলাদা লিখিত নীতিমালা প্রণয়ন করতে হবে এবং বারডেমে কর্তব্যরত থাকাকালীন কোনও চিকিৎসকের করোনায় মৃত্যু হলে এককালীন ১০ লাখ টাকা প্রণোদনা দিতে হবে।

কর্মবিরতি ও অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নেয়া এক চিকিৎসক বলেন, ‘আমরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে এসব দাবি জানিয়ে আসছি। তারা গুরুত্ব দিচ্ছে না। তারপরও আমরা ঝুঁকি নিয়েই রোগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছি। আমাদের যেসব পিপিই (পারসোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট/ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম) দেয়া হয়েছে সেগুলো তিন-চারবার ধুয়ে ধুয়ে ব্যবহার করতে হচ্ছে। আমাদের ১৫-২০ জন চিকিৎসক ও তাদের পরিবারের সদস্যরা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। অথচ বারডেম কর্তৃপক্ষ কাউকে চিকিৎসা পর্যন্ত দিচ্ছে না।’

কর্মসূচিতে যোগ দেয়া অন্য চিকিৎসদের সঙ্গে কথা বলে প্রায় একই ধরনের অভিযোগ ও অসুবিধার কথা জানা যায়। 

তারা বলেন, ‘বারডেম কর্তৃপক্ষ আমাদের সুরক্ষা সামগ্রী দিচ্ছে না। তাদের নাকি ইনকাম নেই, টাকা নেই। অথচ আমাদেরই বারডেম দেখতে হবে। রোগীদের সেবা দিয়ে যেতে হচ্ছে। আমরা বহুবার বোঝানোর চেষ্টা করেছি, যেসব অস্থায়ী চিকিৎসকরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রোগীদের সেবা দিচ্ছেন অন্তত যেন তাদের চাকরির নিশ্চয়তা দেয়া হয়। কিন্তু তারা সেটি মানতে নারাজ।’

চিকিৎসকরা আরও বলেন, ‘বর্তমানে দিনকে দিন করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে যাচ্ছে। আমাদের ঝুঁকিও বাড়ছে। সম্প্রতি ন্যাশনাল কাউন্সিলসহ বেশ কয়েটি মিটিং হয়েছে, কোথাও আমাদের দাবিগুলো আমলে নেয়া হয়নি। আমরা কয়েকবার আল্টিমেটাও দিয়েছিল। তাতেও আমাদের দাবি গ্রাহ্য হয়নি। এ অবস্থায় অনেকটা বাধ্য হয়েই আমরা কর্মসূচি নিয়ে নেমেছি।’

এদিকে বারডেমের এই চিকিৎসদের কমসূচিতে একাত্মতা ঘোষণা করেছে চিকিৎসকদের সংগঠন ফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস’ সেফটি, রাইটস অ্যান্ড রেসপনসিবিলিটি (এফডিএসআর)। 

ট্যাগ: bdnewshour24