banglanewspaper

লাদাখে বিরোধপূর্ণ সীমান্ত নিয়ে ভারত-চীন উত্তেজনা চলমান। উত্তেজনা নিরসনে একদিকে দফায় দফায় দুই দেশের বৈঠক চলছে, অন্যদিকে এই সব বিষয় একাধিক দেশকে জানাল ভারত। এর মধ্যেই আবার শুক্রবার দেশটির প্রধানমন্ত্রী মোদী লাদাখ সফরে যান। এ ঘট্নায় কড়া প্রতিক্রিয়া জানায় চীন। এজন্য অনেকেই ধারণা করছেন, পরিস্থিতি নতুন দিকে মোড় নিতে পারে।

শুক্রবার ভারতের বিদেশ সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা সীমান্ত পরিস্থিতি সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, জার্মানি, রাশিয়া, জাপানকে ব্যাখ্যা দিয়েছে। লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলে ঠিক কী পরিস্থিতি তা জানানো হয়েছে। সীমান্ত সমস্যা সমাধানে গত এক সপ্তাহ ধরে কি আলোচনা হয়েছে তাও জানানো হয়েছে।

এদিকে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সীমান্তে শান্তিরক্ষায় ভারতের প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ দিয়েছেন। জাপানের রাষ্ট্রদূত সাতোশি সুজুকি জানিয়েছেন যে ভারতের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা হয়েছে। আর তাতে স্ট্যাটাস কো ভেঙে চীনের যে কোনও পদক্ষেপ নেওয়ার বিরোধিতা করেছে জাপান।

অন্যদিকে শুক্রবার হঠাৎ লাদাখ পরিদর্শনে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সীমান্তে দাঁড়িয়েই চীনকে কড়া বার্তা দেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, সারা বিশ্বে ‘সম্প্রসারণবাদীদের’ দিন শেষ হয়ে গেছে। শুরু হয়েছে বিকাশবাদের দিন। ইতিহাস সাক্ষী, সম্প্রসারণবাদীরা হয় পরাস্ত হয়েছে, নয় বাধ্য হয়েছে পিছু হটতে। বিশ্বের কোনো দেশের কাছেই ভারত মাথা নোয়ায়নি, নোয়াবেও না। 

লাদাখ সীমান্তে মোতায়েন সেনাবাহিনীর মনোবল বাড়াতেই শুক্রবার ভোরে আকস্মিক সফরে লাদাখে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। লেহ থেকে সেনা চপারে করে নিমুতে ফরোয়ার্ড পোস্টে পৌঁছান মোদী। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গী ছিলেন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত ও সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নারাভানে। সীমান্তে মোতায়েন সেনার মনোবল বাড়াতে তাদের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

মোদী বলেন, আপনাদের সাহস ও আত্মোৎসর্গ তুলনাহীন। যে অবস্থানে আপনারা রয়েছেন, আপনাদের মনোবল ও দৃঢ়তা তার চেয়েও অনেক উঁচুতে। আপনাদের চোখে ভারতমাতার শত্রুরা সেই আগুন ও ক্ষিপ্রতা দেখেছে। আপনারা পাহাড়ের মতো কঠিন ও শক্তিশালী, আপনাদের আস্থা ও আত্মবিশ্বাস হিমালয়ের মতো অটল।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, গালওয়ানে যে পরিস্থিতিতে আপনারা দেশরক্ষায় ব্রতী, তা বিশ্বের কঠিনতম এলাকা। ভারতের সেনাবাহিনী যে বিশ্বের সেরা, বারবার সে প্রমাণ আপনারা রেখেছেন। এখানে যে দৃঢ় বার্তা আপনারা দিয়েছেন, তা বিশ্বের কোণে কোণে পৌঁছে গেছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মাতৃভূমির জন্য যাঁরা প্রাণ দিয়েছেন, তাঁদের এবং আপনাদের আমি সেলাম জানাই। লাদাখের প্রতিটি নদী, নুড়িপাথর, প্রতিটি কোনা জানে এটা ভারতের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ।

ট্যাগ: bdnewshour24