banglanewspaper

যুক্তরাষ্ট্রের কানেকটিকাট অঙ্গরাজ্যের ম্যানচেস্টারে বায়তুল মামুর মসজিদে কমিটির কতিপয় সদস্য কর্তৃক নিরীহ মুসল্লিদের ওপর অতর্কিত হামলার ঘটনায় পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন হামলার শিকার মুসল্লিরা। গত ২৬ জুন বিকেলে তিন বছর মেয়াদি নতুন কমিটি গঠন করার সময় মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে ‘শয়তান’ বলাকে কেন্দ্র করে কমিটির সদস্য ও মুসল্লিদের মাঝে হট্টগোল ও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছিল। ঘটনার কয়েকদিন পর হামলার শিকার কয়েকজন মুসল্লি সম্মিলিতভাবে স্থানীয় ম্যানচেস্টার পুলিশ প্রধানের বরাবরে একটি আবেদন করেন। বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করছে বলে জানা গেছে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস এ খবর জানিয়েছে। 

পুলিশের কাছে দায়ের করা অভিযোগে ভুক্তভোগীরা উল্লেখ করেন, গত ২৬ জুন কেলে ম্যানচেস্টারে বায়তুল মামুর মসজিদে কমিটির তিন বছর মেয়াদি নতুন কমিটি গঠন করার সময় মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে ‘শয়তান’ বলে গালি দেয়া হয়। এ কথায় প্রতিবাদ করতে গেলে কতিপয় সদস্য তাদের ওপর চড়াও হয়ে মারতে উদ্যোত হন। এ ঘটনার পর থেকে তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। হামলাকারিদের নাম উল্লেখ করে তারা পুলিশের সহযোগিতা কামনা করেছেন। বর্তমানে বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করছে বলে ভুক্তভোগীরা জানান।

গত ১ জুলাই সন্ধ্যায় মসজিদে কমিটির ট্রাস্টি বোর্ডের অন্যতম সদস্য নাজমুল ফারুক ও সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেনের নেতৃত্বে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আসিক রহমান, অ্যাড. সালেহ উদ্দিন ও সাদেক নজরুলকে সাথে নিয়ে বিষয়টি মিমাংসার লক্ষ্যে পুলিশে অভিযোগকারী ভুক্তভোগীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন। আলোচনা শেষে ভুক্তভোগীদের পক্ষ থেকে হারুন আহমেদ তিনটি শর্ত আরোপ করেন। 

শর্তগুলো হলো- বর্তমান কমিটি ভেঙ্গে দিতে হবে, মসজিদের গঠনতন্ত্রের সংশোধন এবং মুসল্লিদের শয়তান বলার জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা প্রার্থনা। অপর পক্ষের মতামতের জন্য মিমাংসার প্রস্তাবকারীগণ ২ দিনের সময় নিয়েছিলেন, কিন্তু এক দিনের মাথায় তারা নিজেদের ব্যর্থতা স্বীকার করে বলেন, ‘আমরা মিমাংসার উদ্যোগ নিয়েছিলাম কিন্তু ব্যর্থ হয়েছি। এখন আপনাদের প্রক্রিয়া মত কাজ  চালিয়ে যান।’

ট্যাগ: bdnewshour24