banglanewspaper

করোনা মহামারির কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এক বছর পিছিয়ে গেল এশিয়া কাপ। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি)। এসিসি’র নির্বাহী বোর্ডের মিটিং শেষে এমন সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল এশিয়া কাপের এবারের আসর। কিন্তু ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা, দেশভিত্তিক কোয়ারেন্টিন বাধ্যবাধকতা, স্বাস্থ্য ঝুঁকি এবং বাধ্যতামূলক সামাজিক দূরত্বের কথা মাথায় রেখে সিদ্ধান্ত বদলাতে বাধ্য হয়েছে এসিসি। 

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ২০২১ সালে অনুষ্ঠিত হবে এশিয়া কাপ। আগামী বছরের জুন মাসেই আসর আয়োজনের প্রস্তুতি নেওয়ার কথা জানিয়েছে সংগঠনটি। এছাড়া আসন্ন আসরের আয়োজক দেশের ক্ষেত্রেও এসেছে পরিবর্তন। 

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) এশিয়া কাপের আসন্ন আসরের আয়োজক স্বত্ব শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের (এসএলসি) হাতে তুলে দিয়েছে। ফলে ২০২১ সালে এশিয়া কাপ আয়োজন করবে শ্রীলঙ্কা। তবে এর বদলে ২০২২ এশিয়া কাপের আয়োজক হবে পিসিবি।

এর আগে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী এবারের এশিয়া কাপ বাতিলের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। এ নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানায় পিসিবি। কারণ, এশিয়া কাপ বাতিল বা স্থগিতের সিদ্ধান্ত জানানোর এখতিয়ার শুধু এসিসি’র সভাপতির।

এসিসি’র বর্তমান সভাপতি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) প্রধান বর্তমানে চিকিৎসা নিতে লন্ডনে অবস্থান করছেন। সেখানে তার অস্ত্রোপচার সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছে বিসিবি। এর মধ্যেই এশিয়া কাপ পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানা গেল।

ট্যাগ: bdnewshour24