banglanewspaper

গালওয়ান উপত্যাকায় চীনা সেনাদের সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ ভারতীয় সেনা নিহতের ঘটনার পরই উত্তাল হয়ে পড়ে দুই দেশের সম্পর্ক। এরপর থেকেই ভারতীয়রা চীনের সব ধরণের পণ্য বয়কট করতে শুরু করে।

বিভিন্ন সংগঠন থেকে ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক আসলেও ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) প্রধান স্পন্সর ‘ভিভো’। এনিয়ে বেশ ঝামেলায় পড়তে হয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিসিআই)।

ঝামেলায় পড়লেও আইপিএলের ১৩তম আসরের প্রধান স্পন্সরশিপ ভিভো-ই ছিল সঙ্গে আরও কিছু চায়না প্রতিষ্ঠানও ছিল।

এসব নিয়ে সমালোচনা চলছে ভারতজুড়ে। জাতীয়তাবাদী রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান রাষ্ট্রীয় সেবক সংঘের (আরএসএস) অঙ্গসংগঠন স্বদেশিয় জাগরণ মঞ্চ (এসজেএম) দ্রুততম সময়ে আইপিএল থেকে সব ধরনের চীনা প্রতিষ্ঠানকে বের করে দেওয়ার দাবি তুলে সংগঠনটির জাতীয় আহ্বায়ক কমিটির প্রধান অশ্বিনী মহাজন বলেন, ‘চীনা পণ্য বর্জনের বিষয়টি এখন ভারতের প্রাণের দাবি। এটি কেবল এসজেএমের দাবি নয়। এ মুহূর্তে ভারতীয়দের মন মানসিকতা চীনা পণ্য ও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধেই।’

শেষমেশ নিজ থেকেই সরে দাঁড়ানোর কথা জানালো ‘ভিভো’। এমনটাই দাবি করছে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো। চীনা প্রতিষ্ঠানটি স্পন্সরশিপ থেকে সরে যাওয়ায় এবার নতুন করে স্পন্সরশীপের ডাক দিবে বিসিসিআই।

আইপিএলে চীনা এই প্রতিষ্ঠানটি ৪০০ কোটি রুপি দিচ্ছে প্রতি বছর। তাই বিসিসিআই-ও বেশ চেষ্টা করেছে চাপের মুখেও প্রতিষ্ঠানটিকে ধরে রাখতে।

ট্যাগ: bdnewshour24