banglanewspaper

গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত এক কয়েদির পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় প্রাথমিকভাবে ছয়জনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হয়েছে। এছাড়া আরও ছয়জনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে কারা কর্তৃপক্ষ।

এই ১২ জনের মধ্যে প্রধান কারারক্ষীসহ অন্যান্য কারারক্ষীরা রয়েছেন।

শুক্রবার (৭ আগস্ট) বিকেলে এ খবর নিশ্চিত করেছেন আইজি প্রিজন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম মোস্তফা কামাল পাশা।

তিনি জানান, এ ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হযেছে। ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা হয়েছে।

পুলিশ ওই কয়েদির বাড়িতে খোঁজ-খবর নিচ্ছে। কয়েদি নিখোঁজের পর গাজীপুরে চিরুনি অভিযান পরিচালিত হয়েছে।

আইজি প্রিজন আরও জানান, এ ঘটনায় ডিআইজি প্রিজনসহ তিন সদস্যের একটি কমিটি করা হয়েছে। কমিটি তিন কার্যদিবসের মধ্যে রিপোর্ট দেবে। তদন্তে কারো অবহেলা প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) সন্ধ্যায় গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে পালিয়ে যান কয়েদি আবু বক্কর সিদ্দিক (৩৫)।

তার বাড়ি সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার চণ্ডিপুর এলাকায়। তিনি হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত।

সন্ধ্যায় আসামিদের গণনার সময় থেকে কয়েদি আবু বক্কর সিদ্দিককে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। ২০১২ সাল থেকে আবু বকর সিদ্দিক এ কারাগারে বন্দী ছিলেন।

২০১২ সালে আরও একবার কারাগারের ভেতর লুকিয়ে ছিলেন এই কয়েদি। পরে অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে পাওয়া যায়।

ট্যাগ: bdnewshour24