banglanewspaper

আমেরিকান নাগরিক পরিচয় দিয়ে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিপরীত লিঙ্গের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে তোলেন বাংলাদেশে বসবাসরত চার নাইজেরিয়ান নাগরিক। একপর্যায়ে দামি উপহার পাঠানোর প্রলোভন দেখিয়ে অভিনব পন্থায় হাতিয়ে নেন মোটা অঙ্কের টাকা। আবার এই চার নাইজেরিয়ানকে কাস্টমস কর্মকর্তা সেজে প্রতারণায় সহায়তা করে আসছিলেন বাংলাদেশি এক নারী।

বৃহস্পতিবার (৭ আগস্ট) দিবাগত রাতে রাজধানীর কাফরুল ও পল্লবী এলাকায় অভিযান চালিয়ে নাইজেরিয়ান ওই চার নাগরিক ও বাংলাদেশি নারীকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৪)।

এ সময় তাদের কাছ থেকে দুইটি মেয়াদোত্তীর্ণ পাসপোর্ট, ব্যাংকে অর্থ জমা করার বই, চেকবই, ১২টি মোবাইল ফোন, একটি প্রাইভেট জিপ গাড়ি, নগদ তিন লক্ষাধিক টাকাসহ হোয়াটসঅ্যাপ-ইমো-ফেসবুকে কথোপকথনের স্ক্রিনশটের কপি জব্দ করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- ওনোরাহ নামদি ফ্রাঙ্ক-৩২ (Onuorah nnamdi Frank), উদেজে ওবিনা রুবেন-৪১ (Udeze Obinna Ruben), ম্যাকদুহু কেলভিন-৪১ (Macduhu Kelvin), ফ্র্যাঙ্ক জ্যাকব-৩৫ (Frank Jacob) ও টুম্পা আক্তার (২৩)।

তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৪ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সাজেদুল ইসলাম সজল জানান, আটক নাইজেরিয়ান নাগরিকদের চক্রটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিপরীত লিঙ্গের ব্যক্তিদের সঙ্গে আমেরিকান নাগরিক হিসেবে পরিচয় দিয়ে বন্ধুত্ব গড়ে তুলতেন। একপর্যায়ে প্রতারণার কৌশল হিসেবে দামি উপহার বাংলাদেশে পাঠানোর প্রলোভন দেখাতেন।

কিছুদিন পর বাংলাদেশের কাস্টম অফিসার পরিচয়ে এক নারী উপহার আসার কথা বললে ভিকটিমের বিশ্বাসযোগ্যতা বাড়ে এবং পারসেলটি ছাড়াতে কাস্টমস ভ্যাট/শুল্ক বাবদ টাকা জমা দিতে হবে বলে জানান। একপর্যায়ে ভিকটিম কথিত ভ্যাট/শুল্ক বাবদ বিভিন্ন ব্যাংকে টাকা পাঠান। এভাবে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় চক্রটি।

আটকদের বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান এএসপি সাজেদুল ইসলাম সজল।

ট্যাগ: bdnewshour24