banglanewspaper

হাতে গোনা আর মাত্র ৪ দিন। এরপরই মহামারি নভেল করোনা ভাইরাসের বহুল প্রত্যাশিত ভ্যাকসিন নিয়ে আসছে রাশিয়া। আগামী ১২ আগস্ট রাশিয়ায় উৎপাদিক প্রাণঘাতি করোনা প্রতিরোধক টিকা আনার কথা স্থানীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন রুশ উপস্বাস্থ্যমন্ত্রী ওলেগ গ্রিদনেভ।

রাশিয়ার সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, গামালেয়া ইনস্টিটিউট ও রাশিয়ান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় যৌথভাবে উৎপাদন করা এই টিকার তৃতীয় তথা চূড়ান্ত ট্রায়াল চলছে। 

গতকাল শুক্রবার উফা শহরে একটি ক্যান্সার সেন্টার ভবনের উদ্বোধনকালে স্পুটনিক নিউজকে গ্রিদনেভ বলেছেন, ‘গামালেয়া সেন্টারের উৎপাদিক টিকার নিবন্ধন করা হবে ১২ আগস্ট। এ মুহূর্তে চূড়ান্ত ট্রায়াল চলছে। তৃতীয় ধাপের ট্রায়ালই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এই টিকা যে নিরাপদ সেটি অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে।’

এই ভ্যাকসিন শুরুতে চিকিৎসক ও বয়স্ক নাগরিকদের দেয়া হবে বলেও জানান গ্রিদনেভ।

তিনি জানান, এর আগে এই টিকার দ্বিতীয় ধাপের ট্রায়ালে স্বেচ্ছাসেবীদের মধ্য ইউমিনিটি বাড়তে দেখা যায়। কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও লক্ষ্য করা যায়নি।

গেল সপ্তাহে রাশিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী মিখাইল মুরাশকো জানিয়েছেন, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের শেষ ধাপে ভ্যাকসিনের ব্যবহারে উচ্চমাত্রার কার্যকারিতা লক্ষ্য করা গেছে। আগস্টের মাঝামাঝি থেকে কেবল চিকিৎসক ও বয়স্কদেরেই এই ভ্যাকসিন দেয়া হবে। অক্টোবরে সারা দেশে এই টিকা প্রদান কর্মসূচি চলবে।

এর আগে গেল ১৮ জুন মস্কোর শেচেনোভ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভ্যাকসিনটির প্রথম ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু হয়। তাতে ৩৮ জন স্বেচ্ছাসেবী অংশ নিয়েছিলেন। ২০ জুলাই শুরু হয় দ্বিতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল। পরপর দুই ধাপের ভ্যাকসিন কার্যকারিতা ছিল আশাব্যঞ্জক। 

তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, ভ্যাকসিন আবিষ্কারের ক্ষেত্রে তাড়াহুড়োর কিছু নেই। তাতে হিতে বিপরীত হতে পারে। তাই মানবদেহে প্রয়োগের আগে ভালোভাবে যাচাই করে নিতে হবে। সতর্ক থাকতে হবে, ট্রায়ালের সবগুলো ধাপে টিকায় সফলতার বিষয়ে।

ট্যাগ: bdnewshour24