banglanewspaper

একটি কার্যকর ভ্যাকসিনের জন্য পাগলপ্রায় বিশ্ব। দীর্ঘ ৪-৫ মাসেও একটি ভ্যাকসিনের দেখা পায়নি করোনা ভাইরাসের দিশেহারা মানবজাতি। তবে কয়েকটি ভ্যাকসিন আশা জাগাচ্ছে।

এখানেও কিন্তু আছে, এসব ভ্যাকসিন পুরোপুরি কার্যকর নাও হতে পারে। করোনা ভ্যাকসিন অন্তত ৭৫ শতাংশ কার্যকর থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন হোয়াইট হাউসে করোনা ভাইরাস বিষয়ক পরামর্শদাতা ড. অ্যান্টনি ফাউসি।

তার মতে অন্তত ৭৫% কার্যকারিতা থাকবে, বিজ্ঞানীরা এমন ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা চালাচ্ছে এখন। ৯৮% কার্যকারিতাসম্পন্ন ভ্যাকসিন আবিষ্কারের সম্ভাবনা অনেক কম।  

অ্যান্টনি ফাউসি বলেন, ৯৮% চাই না। ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা ৭৫% বা তার কম হলেই চলবে।  এখন যা পরিস্থিতি ৭৫% এর কম কার্যকারিতার ভ্যাকসিনও গ্রহণ করা হবে। অন্তত ৫০% থেকে ৬০% হলেও চলবে। 

সম্প্রতি ব্রাউন ইউনিভার্সিটি অব পাবলিক হেলথের সঙ্গে প্রশ্নোত্তর পর্বে আমেরিকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব এলার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজ'র কর্মকর্তা ফাউসি বলেন, এখন আমাদের এমন কিছু পদক্ষেপ করতে হবে, যাতে এই অতিমারী কিছুটা হলেও রুখে দেওয়া সম্ভব হয়। তা যেন আর অতিমারী‌ থাকতে না পারে। তার জন্য ৫০-৬০% কার্যকারিতা সম্পন্ন ভ্যাকসিনও গ্রহণযোগ্য হবে।

আমেরিকার এফডিএ জানিয়েছে, মানবদেহের পক্ষে সম্পূর্ণ নিরাপদ প্রতিষেধক এবং যেটা অন্তত ৫০% কার্যকর হবে, তার ওপরে তারা জোর দিচ্ছে।

করোনা প্রতিষেধক তৈরির প্রক্রিয়ার শেষ পর্যায়ে পৌঁছে গেছে নোভাভ্যাক্স, মডারনা, অ্যাস্ট্রাজেনেকার মতো বড় মাপের ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি।

বেশ কিছু আগে আমেরিকার কিছু প্রতিষ্ঠান ভ্যাকসিন আবিষ্কারে সফল দাবি করলেও এখন আলো মুখ দেখেনি। গত জুলাইয়ের শেষে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, দু'সপ্তাহ পরে করোনা মোকাবিলায় ভাল খবর দিতে চলেছেন। তবে সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে চলতি বছরের শেষে বা আগামী বছরের শুরুতে ভ্যাকসিন আসতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

ট্যাগ: bdnewshour24