banglanewspaper

ইরাকের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় কুর্দি অধ্যুষিত অঞ্চলে তুরস্কের ড্রোন হামলায় দেশটির সীমান্তরক্ষী বাহিনীর শীর্ষ পর্যায়ের দুই কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। ইরাকের নিরাপত্তা বাহিনীর মিডিয়া সেল এক বিবৃতিতে এ খবর নিশ্চিত করেছে। এ ঘটনায় দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা চরমে পৌঁছেছে। তুর্কি রাষ্ট্রদূতকেও তলব করেছে ইরাক।

তুরস্ক দীর্ঘদিন ধরেই ওই এলাকায় কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি বা পিকেকে গেরিলাদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান চালিয়ে আসছে। যার প্রেক্ষিতেই এ ঘটনা ঘটলো। 

সামরিক বাহিনীর বিবৃতিতে বলা হয়, মঙ্গলবার কুর্দিস্তানের সিদাকান এলাকায় তুর্কি ড্রোন হামলায় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর দু’জন ব্যাটালিয়ন কমান্ডার এবং তাদের চালক নিহত হয়েছেন।

সিদাকান শহরের মেয়র ঈশান চালাবি বলেন, পিকেকে গেরিলাদের সঙ্গে বৈঠকের সময় ইরাকি সীমান্তরক্ষী বাহিনীর কমান্ডারদের লক্ষ্য করে তুর্কি ড্রোন থেকে হামলা চালানো হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইরাকের একটি নিরাপত্তা সূত্র দেশটির টেলিভিশন চ্যানেল আস-সুমারিয়াকে জানিয়েছে, তুরস্কের ড্রোন হামলায় ইরাকি সীমান্তরক্ষী বাহিনীর পাঁচ সদস্য নিহত হয়েছেন, যার মধ্যে দু’জন শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তা রয়েছেন। ওই হামলায় পিকেকে গেরিলার ১০ সদস্য নিহত হয়।

এ ঘটনায় তুর্কি প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সফর বাতিল করেছে ইরাক। বৃহস্পতিবার এই সফরের সময়সূচি নির্ধারণ করা ছিল। ইরাকের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে এমন তথ্য দেয়া হয়েছে। এক বিবৃতিতে বলা হয়, ইরাকে হামলা ও সীমান্ত লঙ্ঘনের ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে তুর্কি রাষ্ট্রদূতকেও তলব করা হয়েছে।

তুরস্কের কাছে ও ইরানি সীমান্তে উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় ইরাকের সিদাকান এলাকায় মঙ্গলবার ড্রোন হামলা চালায় তুরস্ক। ইরাক সেই হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে। এতে ইরাকি সীমান্ত বাহিনীর দুই সদস্য ও গাড়ির এক চালক নিহত হয়েছেন।

ট্যাগ: bdnewshour24