banglanewspaper

স্মার্টফোন কেনার সময় আমরা প্রায় সবাই ব্যাটারির ক্ষমতা জেনে নেওয়ার চেষ্টা করি। আর সেই কারণেই স্মার্টফোন কোম্পানিগুলো এখন বেশি এমএএইচ-এর ব্যাটারি যুক্ত স্মার্টফোন নিয়ে আসছে। এবছরের বেশিরভাগ স্মার্টফোনে ৪,০০০- ৫০০০ এমএএইচ-এর ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও সম্প্রতি টেকনো ও স্যামসাং লঞ্চ করেছে ৬,০০০ এমএএইচ ও ৭,০০০ এমএএইচ ব্যাটারির স্মার্টফোন। বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ব্যাটারির ফোনগুলো নিয়ে আলোকপাত করা হলো যেখানে আপনি ১৮,০০০ এমএএইচ পর্যন্ত ব্যাটারি পাবেন।

এনার্জিজার পাওয়ার ম্যাক্স পি১৮কে পপ

এটি আপাতত বিশ্বের সবচেয়ে বেশি শক্তিশালী ব্যাটারির ফোন। এতে ১৮,০০০ এমএএইচ-এর ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। এতে ডুয়েল পপ আপ সেলফি ক্যামেরা আছে। এছাড়াও দেখতে অনেকটাই ইটের মত। আবার বড় ব্যাটারি থাকার কারণে এর ওজন ও বেশি। ফোনটিতে ফুল স্ক্রিন ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে।

এনার্জিজার পাওয়ার ম্যাক্স পি১৬কে প্রো

নাম শুনেই আন্দাজ করতে অসুবিধা হয় না যে এতে ১৬,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। ডুয়াল ক্যামেরার এই ফোনটিও যথেষ্ট ভারী। এর পিছনে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ও উপলব্ধ।

ব্ল্যাক ভিউ বিভি৯১০০

মিডিয়াটেক প্রসেসরের সাথে আসা এই ফোনে ১৩,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। আবার চার্জিংয়ের জন্য আছে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট। সাথে ফাস্ট চার্জিংও সাপোর্ট করে। এই ফোনে ১৬ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা অা‌ছে।

ডোগি বিএল১২০০০

এই ফোনে ৬,০০০ এমএএইচ ক্ষমতা সম্পন্ন ২টি ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও সিকিউরিটির জন্য আছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। আবার এতে এলইডি ফ্ল্যাশের সাথে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে।

জিওনি এম৩০

এটিও যথেষ্ট ভারী একটি ফোন। কিছুদিন আগেই জিওনি এই ফোনকে চীনে লঞ্চ করেছে। এতে ১০,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। চার্জিংয়ের জন্য আছে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট। এতে ২৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। ফোনটির সামনে আছে ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা ও পিছনে আছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ট্যাগ: bdnewshour24 স্মার্টফোন