banglanewspaper

যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতোই ‘মেক সৌদি আরব গ্রেট এগেন’ নীতিতে বিশ্বাসী ছিলেন সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান। এই নীতির আদলেই দেশ সংস্কারের নানা উদ্যোগ হাতে নেন তিনি।

বিনোদনের জন্য মুসলিম শাসিত দেশটিতে পপ কনসার্ট ও র‌্যাসলিংয়ের আয়োজন করেন। ইসলামের মৌলিক নীতি পর্দা প্রথা ভেঙে নারীর ক্ষমতায়নের ভূমিকা রাখেন। সমগ্র মধ্যপ্রাচ্য ও পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলে কর্তৃত্ব করতে এসব পরিকল্পনা তার।

পরিকল্পনাগুলো প্রাথমিকভাবে আশার সঞ্চার করলেও রাজনীতিতে তার অপরিপক্কতা ও বেপেরোয়া মনোভাবের কারণে দূরাশায় পরিণত হতে সময় লাগেনি। শ্রেষ্ঠত্বের বদলে দেশকে নিয়ে গিয়েছেন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। চরম ক্ষমতার পাশাপাশি অপব্যবহার করেছেন ইসলাম ধর্মেরও।

বিনোদনের ব্যবস্থা করতে গিয়ে তিনি দেশটির জাতীয় বাজেটে ঘাটতি ফেলে দেন। ফলে জনগণের মধ্যে সৃষ্টি হয় অসন্তোষ। নারীদের ক্ষমতায়নের চেষ্টা করলেও তার সময়েই দেশটিতে বেকারের সংখ্যা ২৯ শতাংশ। বন্ধ হয় বড় বড় মেগা প্রকল্পগুলো।

ট্যাগ: bdnewshour24