banglanewspaper

সহসাই জেল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন না অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের চর্চিত বান্ধবী বাঙালি অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী। কারণ তার জেলের মেয়াদ আরও ১৪ দিন বাড়ানো হয়েছে। সেই হিসেবে আগামী ৬ অক্টোবর পর্যন্ত জেল হেফাজতেই থাকতে হবে রিয়াকে।

ভারতের মাদক মামলা সংক্রান্ত বিশেষ আদালত এনডিপিএস (নার্কোটিক ড্রাগস অ্যান্ড সাইকোট্রপিক সাবস্ট্যান্সেস) মঙ্গলবার তার জেলের মেয়াদ বাড়িয়েছে। তাই আপাতত মুম্বাইয়ের বাইকুল্লা জেলেই থাকতে হবে রিয়াকে।

তবে ইতিমধ্যে বম্বে হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করেছেন রিয়া ও তার ভাই শৌভিক। বুধবার তার শুনানি।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতে মাদক যোগ উঠে আসার পর গত ৯ সেপ্টেম্বর রিয়াকে গ্রেপ্তার করে নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। সেবারও ১৪ দিনের জেল হয় রিয়ার। মঙ্গলবার সেই মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় নতুন করে আদালতে আবেদন জানিয়েছিল এনসিবি। তাতে আদালত আরও ১৪ দিনের হেফাজত মঞ্জুর করে।

সুশান্তের মৃত্যুর আগে কয়েক মাস ধরে তার সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন রিয়া। যার ফলে ১৪ জুন বান্দ্রার বাড়ি থেকে সুশান্তের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হওয়ার পর রিয়াকেই কাঠগড়ায় তোলে প্রয়াত অভিনেতার পরিবার। রিয়ার নামে মামলা দায়ের করেন সুশান্তের বাবা। রিয়া তার ছেলের টাকা নয়ছয় করেছেন এবং তাঁকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

শুরুতে মহারাষ্ট্র পুলিশের হাতে সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তভার থাকলেও সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পর তা সিবিআইয়ের হাতে চলে যায়। টাকা নয়ছয়ের অভিযোগ খতিয়ে দেখার ভার পড়ে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের।

এরপর প্রয়াত অভিনেতার মৃত্যুতে মাদক যোগও সামনে আসে। রিয়ার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের সূত্র ধরে বিষয়টি সামনে আসে। তা নিয়ে তদন্তে নেমে রিয়ার ভাই শৌভিক চক্রবর্তীকে ৪ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার করে এনসিবি। গ্রেপ্তার করা হয় সুশান্তের দুই কর্মচারীকেও। মাদক অভিযোগ নিয়ে এখনও পর্যন্ত ১৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24