banglanewspaper

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বায়তুস সালাত জামে মসজিদ বিস্ফোরণে নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে ৫ লাখ টাকা করে সহায়তা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) মসজিদে বিস্ফোরণে অগ্নিদগ্ধ হয়ে যাওয়া ৩৫ জনের পরিবারের মাঝে ১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা সহায়তা দেওয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এ তথ্য গণমাধ্যমে নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসককে প্রধানমন্ত্রীর অনুদানে চেক ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে বিতরণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) রাত পৌনে ৯টায় নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার পশ্চিমতল্লা এলাকার বাইতুস সালাত জামে মসজিদে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এরপর দগ্ধ ৩৭ জনকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। সেখানে পর্যায়েক্রমে মারা যান ৩৫ জন।

নিহতরা হলেন- সাব্বির (২২), দেলোয়ার হোসেন (৪৫), জুয়েল (৭), জামাল (৪০), রাসেল (৩০), জুবায়ের (১৪), রিফাত (১৮), হুমায়ুন কবির (৪৩), কাঞ্চন (৩৭), নয়ন (২৭), হুমায়ুন কবির (৭০), মোস্তফা কামাল (৩৫), ইব্রাহিম (৪৩), রিফাত (১৮), জুনায়েদ (১৭), কুদ্দুস বেপারি (৭২), রাসেল (৩৪), বাহাউদ্দিন (৬২), মালেক (৬০), মিজান (৪০), নাদিম আহমেদ (৪০), শামীম হাসান (৪৫), জুলহাস, মো. আলী মাস্টার (৫৫), আবুল বাসার মোল্লা (৫১), মনির ফরাজী (৩০) ও ইমরান (৩০

এদিকে গত ১২ সেপ্টেম্বর মসজিদ পরিচালনা কমিটি, তিতাস গ্যাস ও ডিপিডিসির অবহেলাকে দায়ী করে অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগে মামলা করেন ফতুল্লা মডেল থানার এসআই হুমায়ুন কবির।

মসজিদ কমিটির অভিযোগ, গ্যাস লিকেজের বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে লিকেজ মেরামত করতে তিতাস গ্যাস থেকে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ চাওয়া হয়। তারা ঘুষের টাকা জোগাড় করতে পারেননি বলে গ্যাস লিকেজ মেরামত করা যায়নি। মসজিদ কমিটির এ বক্তব্যে তোলপাড় শুরু হয়। এরপরই ফায়ার সার্ভিস, জেলা প্রশাসন, তিতাস গ্যাস, ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (ডিপিডিসি) ও সিটি কর্পোরেশন পৃথক পাঁচটি তদন্ত কমিটি গঠন করে।

ট্যাগ: bdnewshour24