banglanewspaper

জিনোম এডিটিং বা জিনোম ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের একটি পদ্ধতি বিকাশে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ রসায়নশাস্ত্রে যৌথভাবে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন দুই নারী। তারা হলেন এমানুয়েলে কার্পেন্তিয়ের ও জেনিফার এ. দোদনা, দুজন পুরস্কারটির অর্ধেক অর্ধেক করে পেয়েছেন। 

বুধবার (৭ অক্টোবর) সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে এক অনুষ্ঠানে নোবেল কমিটি ২০২০ সালে পদার্থে নোবেল জয়ীদের নাম ঘোষণা করেন। 

জিনোম বলতে কোনও জীবনের সামগ্রিক ডিএনএকে বোঝায়। জিনোম থেকে ডিএনএ আলাদা করার উপায়কেই জিনোম এডিটিং বলে। সেটার আবার বিভিন্ন পদ্ধতি রয়েছে। এর মধ্যে একটি পদ্ধতির বিকাশে অবদান রেখেছেন দুই নোবেলজয়ী নারী বিজ্ঞানী।

ফরাসি নাগরিক এমানুয়েলে কার্পেন্তিয়ের ১৯৬৮ সালের ১১ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। মার্কিন নাগরিক জেনিফার এ. দোদনা জন্ম ওয়াশিংটন ডিসিতে ১৯৬৪ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি। তিনি ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত রয়েছেন। 

এর আগে গতকাল পদার্থ বিজ্ঞানে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ নোবেল পুরস্কারে ৩ বিজ্ঞানীর নাম ঘোষণা করা হয়। তারা হলেন- রবার্ট পেনরোজ, রেইনহার্ড গেঞ্জেল ও আন্দ্রেয়া গেজ।

গত সোমবার চিকিৎসায় চলতি বছর নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন তিন চিকিৎসা বিজ্ঞানী। হেপাটাইটিস সি ভাইরাস আবিষ্কারের জন্য তাদের এ পুরস্কারে ভূষিত করা হচ্ছে। এই তিনজন হলেন- হার্ভে জে, অল্টার, মাইকেল হাউটন ও চার্লস এম. রাইস।  

আগামীকাল বৃহস্পতিবার (০৮ অক্টোবর) সাহিত্যে, শুক্রবার (০৯ অক্টোবর) শান্তিতে এবং আগামী সোমবার (১২ অক্টোবর) অর্থনীতিতে চলতি বছরের নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে।

চলতি বছরের ডিসেম্বরে নোবেল পুরস্কার প্রদানের অনুষ্ঠান হওয়ার কথা থাকলেও বৈশ্বিক করোনা মহামারির কারণে সেটি হচ্ছে না। বিজয়ীরা ওয়েবিনারে অংশগ্রহণের মাধ্যমে ভার্চুয়াল নোবেল পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারবেন। 

এ বছর থেকে নোবেল পুরস্কারের অর্থমূল্যও বৃদ্ধি করা হয়েছে। এবার থেকে প্রত্যেক বিজয়ী ১০ মিলিয়ন সুইডিশ ক্রোনা পাবেন, বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ৯ কোটি ৪৮ লাখ টাকা।

ট্যাগ: bdnewshour24