banglanewspaper

করোনা মহামারির কারণে এবারের শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে মিছিল ও শোভাযাত্রা না করার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম। তবে স্বাস্থ্যবিধি ও সরকারি নির্দেশনা মেনে ধর্মীয় অন্যান্য অনুষ্ঠান পালন করা যাবে বলে জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিএমপি হেডকোয়ার্টার্সে দুর্গা পূজা উদযাপন উপলক্ষে ঢাকা মহানগর এলাকার নিরাপত্তা, আইনশৃঙ্খলা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত সমন্বয় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার আরও বলেন, ‘করোনার কারণে বিভিন্ন জাতীয় পর্যায়ের অনুষ্ঠান সংক্ষিপ্ত আকারে করা হচ্ছে। পূজামণ্ডপে মাস্ক ছাড়া কাউকে প্রবেশ করতে দেবেন না। স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বল্প পরিসরে দর্শনার্থীদের পূজামণ্ডপে প্রবেশের ব্যবস্থা করার পরামর্শ রইলো।’

মহাষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে আগামী ২২ অক্টোবর শারদীয় দুর্গা পূজা শুরু হবে, আর ২৬ অক্টোবর বিজয়া দশমী এবং বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে।

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাখার উদ্দেশ্যে গুরুত্বপূর্ণ মণ্ডপগুলোতে করোনা জয়ী পুলিশ সদস্যরা ডিউটিতে নিয়োজিত থাকবেন বলে জানান ডিএমপি কমিশনার।

এই সমন্বয় সভায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা, ফায়ার সার্ভিস, র‌্যাব, আনসারের প্রতিনিধি এবং বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, ঢাকা মহানগর সর্বজনীন পূজা উদযাপন কমিটি ও বাংলাদেশ রামকৃষ্ণ মিশনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন উপলক্ষে ঢাকা মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে বেশ কিছু নিরাপত্তাব্যবস্থার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সিদ্ধান্তগুলো হলো- ১. দুর্গাপূজার প্রতিমা তৈরির সময়, পূজা চলাকালীন ও বিসর্জনের সময় মোবাইল প্যাট্রোলের মাধ্যমে নিরাপত্তা জোরদার করা হবে।

২. ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এলাকাভিত্তিক পূজামণ্ডপের নিরাপত্তাব্যবস্থা তদারকি করবেন।

৩. পূজামণ্ডপ ও আশপাশে পকেটমার, ছিনতাই ও ইভটিজিং প্রতিরোধে পুলিশের টহল ডিউটি নিয়োজিত থাকবে।

৪. দুর্গাপূজার এ সময়টিতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম মনিটরিং করা হবে।

৫. বিশেষ গুরুত্ব বিবেচনায় পূজামণ্ডপগুলো ডগ স্কোয়াড ও বোম ডিসপোজাল ইউনিট দিয়ে সুইপিং করানো হবে।

ট্যাগ: bdnewshour24