banglanewspaper

উচ্চ রক্তচাপ আক্রান্ত রোগীদের একটি অংশ বয়সে তরুণ। তবে এই সমস্যা এড়াতে সাহায্য করতে পারে কলা। কেননা কলায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাসিয়াম, যা শরীরে প্রবেশ করার পর সোডিয়ামের প্রভাবকে কমাতে শুরু করে। ফলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আসে দ্রুতই। এছাড়া অনেক শারীরিক সমস্যা থেকে দূরে থাকা যায়। প্রতিদিন একটি কলা খেলে উচ্চ রক্তচাপ থেকে দূরে থাকতে পারবেন। আর কলা খাওয়ার উপকারিতা কী তা প্রকাশ করেছে বোল্ডস্কাই।

হাড় শক্ত হয়
প্রতিদিনি একটি করে কলা খেলে শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি দূর হয়। যে কারণে হাড় শক্ত হয়ে উঠে। সেই সঙ্গে অস্টিওআথ্রাইটিস মতো বোন ডিজিজে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়।

দৃষ্টিশক্তির উন্নতি
কলা খেলে দৃষ্টিশক্তি ভালো থাকে। এছাড়া কলা খেলে রেটিনার ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। ফলে ম্যাকুলার ডিজেনারেশন বা কোনও ধরণের চোখের রোগে আক্রান্ত হওয়ানর ভয় অনেকটাই কমে যায়।

সতেজ
কলা খাওয়ার কারণে শরীরে সব সময় সতেজ ভাব থাকে। সহজেই ক্লান্তি আসে না। তাই প্রতিদিন কলা খেলে শরীরে ক্লান্তি দূর হয়ে সতেজ থাকবে সব সময়।

হজম ক্ষমতার উন্নতি
অনেকেই হজমের সমস্যায় ভুগে থাকেন। এ সমস্যা রোধে প্রতিদিন কথা খেতে পারেন। কেননা কলায় থাকা উপকারী উপাদান পাচক রসের ক্ষরণ বাড়িয়ে দেয়। ফলে হজম প্রক্রিয়া ঘটে। তাই যদি পেটে কোনও রকম সমস্যা দেখা দেয়, তাহলে নিয়মিত কলা খান। উপকার মিলবে।

স্ট্রেস কমে
প্রদিনের খাবারে কলা রাখলে শরীরে ট্রাইপটোফিন নামক একটি উপাদানের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। যার প্রভাবে ফিল গুড হরমোনের ক্ষরণ এত মাত্রায় বেড়ে যায় যে, স্ট্রেস লেভেল তো কমেই সঙ্গে মানসিক অবসাদও কমে।

অপুষ্টি দূর হয়
পুষ্টির ঘাটতি হলে নানা রকম রোগ এসে শরীরে বাসা বাঁধে। এমন অবস্থায় কাজে আসতে পারে কলা। এতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন এবং মিনারেল। সেই সঙ্গে রয়েছে পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়রন ও ফলেটের মতো উপাদান।

ওজন নিয়ন্ত্রণ
ওজন নিয়ন্ত্রণেও কলা বেশ ভূমিকা রাখে। কেননা কলায় পটাশিয়াম ছাড়াও প্রচুর ফাইবার রয়েছে। যা অনেকক্ষণ পেট ভরিয়ে রাখে। ফলে খাওয়ার পরিমাণ কমতে শুরু করে। কম খাওয়ার কারণে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে।

ট্যাগ: bdnewshour24