banglanewspaper

করোনার প্রথম সংক্রমণের ধাক্কা সামাল দিতে না দিতেই উঁকিঝুঁকি দিতে শুরু করেছে দ্বিতীয় ঢেউ। এরই মধ্যে বাড়তে শুরু করেছে করোনার চোখ রাঙানি। এখনই আশঙ্কা করা হচ্ছে শীতের মধ্যেই করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় লণ্ডভণ্ড হতে পারে বন্দর নগরী। তাই মাস্ক ছাড়া রাস্তা-ঘাট, মার্কেটসহ জনবহুল এলাকাতে ঘুরাঘুরি করলে জরিমানার নির্দেশ দিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন।

মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) টাইগারপাসস্থ নগর ভবনে চসিক বিভাগীয় প্রধান ও প্রকৌশলীদের সাথে অনুষ্ঠিত এক অনুষ্ঠানে শীতের সময়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় এমন কঠোর সিদ্ধান্তের বার্তা দেন চসিক প্রশাসক।

অনুষ্ঠানে শীত মৌসুমে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে চসিক প্রশাসক বলেন, ‌আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে মাস্ক বিহীন কাউকে রাস্তায়, বাজারে, শপিংমলে বা যানবাহনে চলাচল করতে দেখা গেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাৎক্ষণিক জরিমানা করা হবে।

তাছাড়া শীতে করোনার পাশাপাশি ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া যুক্ত হয়ে পরিস্তিতি আরও ভয়াবহ উঠার বিষয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা যদি সচেতন না হই তাহলে কোভিড-১৯ এর সাথে ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া যুক্ত হয়ে পরিস্থিতি ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারে। তাই মশক প্রজননের উৎস ও উৎপত্তির স্থান নির্মূলে চসিকের পরিচ্ছন্ন বিভাগ শীঘ্রই ক্রাশ প্রোগ্রাম হাতে নেবে।

প্রশাসক বলেন, জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্প বাস্তবায়নের সময় যে সকল স্থানে বাঁধ দিয়ে পানি আটকে দেয়া হয়েছে সেখানেই মশক প্রজনন ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। তাই পানি যাতে জমে না থাকে সে জন্য পানি চলাচলের বিকল্প পথ তৈরির ব্যবস্থা করতে হবে।

তিনি নগরবাসীর উদ্দেশে বলেন, প্রতিটি বাসা-বাড়ি দোকান-পাট ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান বাসস্ট্যান্ড রেলস্টেশন ও বিমান বন্দর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার বিষয়টি ব্যক্তি প্রতিষ্ঠান ও কর্তৃপক্ষকে নিজ নিজ উদ্যোগে করতে হবে। কাঁচা বাজার, মাছ-মাংসের দোকানে বিক্রেতাদের অবশ্যই গ্লাভস পরিধান করতে হবে। মসজিদ-মন্দির-গীর্জা-প্যাগোডায় যারা নামাজ ও প্রার্থনা করতে আসবেন তাদের প্রত্যেককে মাস্ক পরতে হবে। উপাসনালয়ে সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখতে হবে। প্রার্থনার সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

সভায় চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে প্রধান ও বিভাগীয় প্রধানদের সদস্য করে মশক নিধন কার্যক্রম ও কোভিড-১৯ বিষয়ক একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়।

এ সময় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক, সচিব আবু সাহেদ চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল সোহেল আহমদ, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মুফিদুল আলম, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আলী, অতিরিক্ত প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোরশেদুল আলম চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ: bdnewshour24