banglanewspaper

কক্সবাজারের টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে ক্রসফায়ারে হত্যার অভিযোগে করা চারটি মামলা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১৬ নভেম্বর) বিকালে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ৪ এর বিচারক তামান্না ফারাহ সংক্ষিপ্ত শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

এতে দুটি মামলা সিআইডিকে, একটি পিবিআইকে ও অপর একটি মামলা সহকারী পুলিশ সুপার উখিয়া-টেকনাফ সার্কেলকে তদন্ত করে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দেন।

গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর পুলিশ চেকপোস্টে গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান (৩৬)। তার গাড়িতে থাকা তার সঙ্গী সিফাতের ভাষ্যমতে, সিনহাকে কোনোরুপ জিজ্ঞাসাবাদ ছাড়াই চেকপোষ্টে গাড়ি থেকে নামতে বলে চার রাউন্ড গুলি ছুড়ে হত্যা করেন পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই লিয়াকত আলী।

পুলিশ সদর দফতর জানিয়েছে, প্রদীপ কুমার দাস ২০১৮ সালে টেকনাফ মডেল থানায় ওসি হিসেবে যোগ দেন। ১৯৯৫ সালে পুলিশ বাহিনীতে উপপরিদর্শক পদে যোগ দেন। ২০১৯ সালে পুলিশের সর্বোচ্চ পদক বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম) পান তিনি। এর আগেও একাধিকবার রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক (পিপিএম) পান ওসি প্রদীপ।

ট্যাগ: bdnewshour24