banglanewspaper

প্রথম ম্যাচে দাপটের সঙ্গে জিতেছে বাংলাদেশ ফুটবল দল। দুই ম্যাচের সিরিজে আজকও জয় প্রত্যাশা করেছিল দর্শকরা।  কিন্তু প্রথম ম্যাচের মতো বাংলাদেশকে খুঁজে পাওয়া যায়নি দ্বিতীয় ম্যাচে। তাই দ্বিতীয় ম্যাচে ড্র করে `মুজিববর্ষ ফিফা আন্তর্জাতিক ফুটবল সিরিজ’ নিজেদের করল বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ও নেপালের মধ্যেকার মুজিববর্ষ ফিফা ফ্রেন্ডলি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি ড্র হয়েছে গোলশূন্যভাবে। গত শুক্রবার প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ২-০ গোলে হারিয়েছিল নেপালকে।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে নাবিব নেওয়াজ জীবন, সাদ উদ্দিন, সুমন রেজারা একাধিক সুযোগ তৈরি করেছেন প্রথমার্ধে। কিন্তু ফিনিশিং দুর্বলতায় আসল কাজ গোলটাই হয়নি। দ্বিতীয়ার্ধে মাহবুবুর রহমান সুফিল, বিপলু আহমেদরা মাঠে নেমেও খেলার ভাগ্য বদলাতে পারেননি।

অন্যদিকে কাউন্টার অ্যাটাক নির্ভর খেলে গেছে নেপাল। সেট পিচ থেকেও ভালো কিছু সুযোগ তৈরি করেছে। তুলনায় বাংলাদেশের আক্রমণে ধার বেশি থাকলেও গোল না পাওয়ার জন্য ভাগ্যকেও দুষতে পারে নেপাল।

একেবারে শেষদিকে ভাগ্যই আসলে বাংলাদেশকে বাঁচিয়েছে, আর হতাশ করেছে নেপালকে। যোগ করা সময়ে নেপালের নবযুগ শ্রেষ্ঠার শট পোস্টে লেগে প্রতিহত না হলে হার নিয়েই ফিরতে হতো স্বাগতিকদের।

প্রথম ম্যাচে নজর কাড়া ফুটবল খেলেছিল বাংলাদেশ। পেয়েছিল ২-০ গোলের জয়। করোনার দীর্ঘ বিরতির পর মাঠে ফিরেই জীবন-সাদদের সেই ফুটবল শৈলী মন ভরিয়েছিল দর্শকদের। শুক্রবারের মতোই তাই এদিন গ্যালারি ছিল দর্শকে পূর্ণ। জামাল ভূঁইয়া যদিও আগের ম্যাচের চেয়ে এ ম্যাচে ভালো খেলার প্রত্যয় জানিয়েছিলেন। তবে দিন শেষে আসলে আগের ম্যাচের মতো লেটার মার্কস পাওয়ার যায়গায় নেই বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ একাদশ: বিশ্বনাথ ঘোষ, মো. রহমত মিয়া, তপু বর্মণ, জামাল ভূঁইয়া, মো. নাবীব নেওয়াজ, ইয়াসিন খান, সুমন রেজা, মো. ইব্রাহীম, মানিক মোল্লা, সাদ উদ্দিন, আনিসুর রহমান।

নেপাল একাদশ: কিরণ চেমজং, রনজিৎ ধীমল, অনন্ত তামাং, বিকাশ খাওয়াস, শিরিং গুরুং, অঞ্জন বিশতা, আরিক বিশতা, সুজল শ্রেষ্ঠা, তেজ তামাং, ধার্ষান গুরুং, ভারত খা।

ট্যাগ: bdnewshour24