banglanewspaper

করোনা পরিস্থিতির কারণে আগামী বছরের (২০২১) এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা নির্ধারিত সময়ে নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

বুধবার (২৫ নভেম্বর) দুপুর ১২ টায় স্কুলে ভর্তি নিয়ে আয়োজিত এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান। 

নতুন বছরে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষাথীদের জন্য তিন মাসের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস করা হয়েছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের আলোকে আমরা তিন মাস ক্লাস করাতে চাই। সে কারণে হয়তো এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা দু-একমাস পিছিয়ে যাবে। সাধারণত প্রতিবছর ফেব্রুয়ারি মাসে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হয়। এপ্রিলে হয় এইচএসসি পরীক্ষা এ বছর সঠিক সময়ে নেওয়া সম্ভব হবে না।’

অনুষ্ঠানে নভেল করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে চলতি বছর প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষা বাতিল করে লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তির সিদ্ধান্ত জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে প্রতিবছরে মতো এবার ভর্তি পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হচ্ছে না। এজন্য বিকল্প পদ্ধতি নিয়ে ভেবেছি। অবশেষে তিনটি বিকল্প প্রক্রিয়া নিয়ে ভেবেছিলাম। এরমধ্যে স্বাভাবিক নিয়মে ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার কথা ভাবলেও করোনার এই সময়ে এটি করতে চাইনি।’

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘সব শিক্ষার্থীর পক্ষে করোনার ঝুঁকি নিয়ে সশরীরে ভর্তি পরীক্ষা দেয়া সম্ভবও হবে না। তাই লটারির মাধ্যমে স্কুলে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেই।’

তিনি জানান, ‘করোনা পরিস্থিতির কারণে লটারি অনুষ্ঠানের সময় আগের মতো অভিভাবকরা শারীরিকভাবে উপস্থিত থাকতে পারবেন না। ভর্তি কমিটি গঠন করে লটারির কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। তবে ভর্তি কমিটিতে কয়েকজন অভিভাবকও থাকবেন।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহাবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক গোলাম ফারুক ও বিভিন্ন শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান।

ট্যাগ: bdnewshour24