banglanewspaper

হাসপাতালে করোনা রোগীর চিকিৎসায় প্রতিটি আইসিইউ বেডের পেছনে নরকার গড়ে চার লাখ টাকা ব্যয় করেছে। আর সাধারণ শয্যার রোগীর জন্য খরচ হয়েছে গড়ে ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা।

শনিবার (১২ ডিসেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত সেমিনারে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এ তথ্য জানান। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হেলথ ইকোনমিকস ইউনিট ‘সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবা দিবস-২০২০’ উপলক্ষে সেমিনারটি আয়োজন করে।  

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাহিদ মালেক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যথোযুক্ত নেতৃত্ব ও হাজারো স্বাস্থ্যকর্মীর প্রচেষ্টায় দেশে কোভিড-১৯ এখনো নিয়ন্ত্রণে। কোভিড মোকাবিলায় শুরু থেকেই চিকিৎসা বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছে। জরুরি ও প্রয়োজনীয় ওষুধের মজুদ রাখা হয়েছে। সঠিক সময়ে হাসপাতাল ও শয্যাসংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। দ্রুততার সঙ্গে কোভিড-১৯ পরীক্ষার কেন্দ্র ১টি ১২০টি করা হয়েছে। অল্প দিনের মধ্যে দেশের ৫৯টি হাসপাতালে সেন্ট্রাল অক্সিজেনের ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। 

টেলিমেডিসিনের মাধ্যমে দেশের আড়াই কোটি মানুষকে সেবা দেওয়া হয়েছে। এর ফলে সংক্রমণ কম হয়েছে, মৃত্যুহার কমে গেছে এবং দেশ অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি।

স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইউনিটের মহাপরিচালক মো. শাহাদৎ হেসেনের সভাপতিত্বে সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের আবুর বাশার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বাংলাদেশের ডেপুটি রিপ্রেজেনটিভ ডা. ভুপিন্দ্র আওলাখ।

ট্যাগ: bdnewshour24