banglanewspaper

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসন সংক্রান্ত আর্টিকেলটি মার্কিন কংগ্রেসে উত্থাপন করা হয়েছে। আর তাতেই মেয়াদপূর্তির আগে আরেকবার অভিশংসনের মুখে পড়ছেন ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এর আগে আর কোনও প্রেসিডেন্ট এইভাবে দুইবার অভিশংসিত হননি।

ট্রাম্পের ক্ষমতার মেয়াদপূর্তির মাত্র ৯ দিন আগে সোমবার (১১ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১২টায় ট্রাম্পের অভিশংসনের বিচার শুরু হয়েছে। বিচারকের ভূমিকায় থাকায় ১০০ সিনেটর ট্রাম্পের ভাগ্য নির্ধারণ করবেন। খবর বিসিসির।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্রের প্রতীক বলে পরিচিত ক্যাপিটল হিলের ভেতরে ডোনাল্ড ট্রাম্পের উগ্র সমর্থকরা যেভাবে সহিংসতা চালিয়েছে, তাতে প্রেসিডেন্টকে অভিশংসনের জোরালো দাবি উঠেছে। হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভস-এর সংখ্যাগরিষ্ঠ ডেমোক্রেটিক দলীয় হুইপ জেমস ক্লাইবার্ন মনে করছেন এর মাঝেই ভোট হয়ে যেতে পারে। যদিও জানুয়ারির ২০ তারিখ মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পের শেষ দিন।

এর আগে, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরেও ডেমোক্র্যাট নিয়ন্ত্রিত হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস-এ ট্রাম্পকে ইমপিচ করা হয়। সেইসময় প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেনের ভাবমূর্তি কালিমালিপ্ত করতে ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্টের উপর চাপ সৃষ্টি করার অভিযোগ ছিল ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। কিন্তু হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস অভিশংসন করলেও, রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রিত সিনেটে রক্ষা পান ট্রাম্প।

ট্যাগ: bdnewshour24