banglanewspaper

গণতন্ত্রের দাবিতে প্রায়ই বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে আন্দোলন হয়ে থাকে। সেগুলোর পদ্ধতি, মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণের সক্ষমতাও ভিন্ন থাকে। বেলারুশের নারীরা যেমন একই দাবিতে কয়েক মাস ধরে আন্দোলন করছেন। কিন্তু তাদের এই আন্দোলন অন্য দশটির চেয়ে ভিন্ন এবং অভিনব। 

দেশটির রাজধানী মিনস্কে চলমান আন্দোলনের ছবি নিয়ে ইউরোপিয়ান আরেক দেশ লিথুয়ানিয়ায় শুরু হয়েছে এক প্রদর্শনী। ‘দ্য ফিউচার অব বেলারুশ, ফুয়েল্ড বাই উইমেন’ শীর্ষক প্রদর্শনী চলছে। সেখানে স্থান পাওয়া এই ছবিতে আন্দোলনরত কয়েকজন নারীকে ফুল হাতে পুলিশের মুখোমুখি হতে দেখা যায়। সঙ্গে তারা কানে দুলও পরেছেন। 

লিথুয়ানিয়ার ভিলিনিয়াস শহরের প্রদর্শনীতে মিনস্কে আন্দোলনরত তিন নারী ফুল আর প্ল্যাকার্ড হাতে প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্দার লুকাশেঙ্কোর পদত্যাগ এবং গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবি জানান। একেবারে বিয়ের পোশাক পরে দাঁড়ানে আনা নামের এক নারী। আনার মা ২৬ বছর আগে এই পোশাক পরে বিয়ে করেছিলেন আর ২৬ বছর ধরেই ক্ষমতায় আছেন লুকাশেঙ্কো।

২০২০ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর আন্দোলনরত এক নারীকে পুলিশের ধরে নিয়ে যায়। মানবাধিকার সংস্থাগুলো বলছে, সেদিন নারীদের মিছিল থেকে ৩০০ জনকে ধরে নিয়ে যায় বেলারুশের পুলিশ। 

বেলারুশের সাদা-লাল পতাকার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আন্দোলনকারীদেরও দেখা যায় সাদা এবং লাল রঙের পোশাক পরতে। সব বয়সের নারীই অংশ নিচ্ছেন আন্দোলনে।

প্রদর্শনীকে সমর্থন জানাতে আয়োজকদের বার্তা পাঠিয়েছেন বেলারুশের নির্বাসিত বিরোধী নেত্রী স্ভেৎলানা তিখানোভস্কায়া। 

সেখানে তিনি বলেছেন,‘‌এই প্রদর্শনী বেলারুশের নারীদের উৎসর্গ করা হয়েছে। আমাদের সবার একটাই লক্ষ্য- বেলারুশে স্বাধীনতা এবং আইনের শাসন ফিরিয়ে আনা। সংগ্রামের অগ্রভাগে রয়েছেন নারীরা। অন্য অনেক নারীর মতো এই আন্দোলন আমার জন্যও ব্যক্তিগত লড়াইয়ের মতো।’

ট্যাগ: bdnewshour24