banglanewspaper

সামাজিত মাধ্যমের সুবাদে তারকাদের সঙ্গে চেহারার মিল রয়েছে এমন অনেকের ছবি প্রকাশ্যে আসে। এবার খোঁজ মিলল ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের সঙ্গে মিল থাকার হুবহু একজনের। পাকিস্তানের বাসিন্দা সেই নারী।

পাকিস্তানের জনপ্রিয় বিউটি ব্লগার আমনা ইমরান। যার চেহারাই মিলে যায় ঐশ্বরিয়ার সঙ্গে। সম্প্রতি তার ছবি নিয়ে সরগরম সামাজিক মাধ্যম। ইনস্ট্রাগ্রামে নিয়মিত নিজের ছবি ও ভিডিও শেয়ার করেন আমনা। যেখানে তিনি নিজেকে ঐশ্বরিয়ার যমজ হিসেবে উল্লেখ করেন।

ইনস্টাগ্রামে বেশ জনপ্রিয় পাকিন্তানি নারী আমনা ইমরান। ঐশ্বরিয়ার বিভিন্ন সিনেমার লুক নকল করেন তিনি। এমনকি ‘দেবদাস’ ও ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ এর দৃশ্যেও অভিনয় করেন। তা প্রকাশ করেন সামাজিক মাধ্যমে। 

আমনার অনুরাগীরা তাকে পাকিস্তানের ঐশ্বরিয়া বলেও উল্লেখ করেন। তা হবেই না কেন! ছবিতে তাকে দেখলে প্রথমবার চমকে যাওয়ার মতোই অবস্থা। ঐশ্বরিয়ার মতো দেখতে হলেও কোনো ধরনের অস্ত্রোপচার করেননি আমনা। পুরোপুরি প্রাকৃতিক গঠনের কারণেই তিনি অনেকটা বলিউড অভিনেত্রীর মতো দেখতে।

ট্যাগ: bdnewshour24

বিনোদন
ব্যানারে-ব্যালটে নাম, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সুযোগ নেই পরীমনির

banglanewspaper

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচন সন্নিকটে। এরইমধ্যে প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত হয়েছে। রোববার (১৬ জানুয়ারি) বিকালে এক প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে মনোনয়নপ্রাপ্ত প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন।

এবারের নির্বাচনে ৪৪ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন, তাদের প্রত্যেককেই নির্বাচনে অংশ নেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। ফলে নির্বাচনের প্রার্থী হিসেবে থাকছেন চিত্রনায়িকা পরীমণিও।

এর আগে গেল শনিবার (১৫ জানুয়ারি) পরী জানান, ‘চিকিৎসক আমাকে সম্পূর্ণ রেস্টে থাকতে বলেছেন। আমার অনাগত সন্তানের জন্মের আগে আমি কোনো ধরনের ঝুঁকি নিতে চাই না। যেহেতু নির্বাচন করতে গেলে মিনিমাম সময় দেওয়া লাগে। আমি সেই সময়টাও দিতে পারছি না এই মুহূর্তে। তাই ভেবে দেখলাম নির্বাচন না করাটাই আমার জন্য উত্তম।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার স্বামী রাজও চায় না আমি এই অবস্থায় নির্বাচনে অংশ নিই। তাই সবমিলিয়ে আমি নিজের ইচ্ছায় নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

কিন্তু মনোয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ সময় ছিল শনিবার (১৫ জানুয়ারি) দুপুর পর্যন্ত। পরী তার সিদ্ধান্ত প্রকাশ্যে আনেন বিকালে। তাই নিয়ম অনুযায়ী তার প্রার্থিতা বাতিল হয়নি। নির্বাচন কমিশন কর্তৃক একটি পূর্ণাঙ্গ ব্যানারও টানানো হয়েছে এফডিসিতে। সেখানে কাঞ্চন-নিপুণ প্যানেলে শোভা পাচ্ছে পরীর নাম ও ছবি।

এ বিষয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার পীরজাদা হারুন বলেন, ‘নমিনেশন পেপার প্রত্যাহার করার সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু কোনো প্রার্থী আবেদন করেননি। তাই প্রত্যেকেই মনোনয়ন পেয়েছেন। কেউ যদি অংশ নিতে না চান, সেটা নির্বাচনের ক্ষেত্রে গ্রহণযোগ্যতা পাবে না। কেননা, ব্যালট পেপারে তার নামও থাকবে।’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ১৭তম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২৮ জানুয়ারি। এবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে দুটি প্যানেল। একটিতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে থাকছেন যথাক্রমে বরেণ্য চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন ও নায়িকা নিপুণ। অন্যটিতে আছেন গত দুই মেয়াদে দায়িত্বে থাকা মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান।

ট্যাগ:

বিনোদন
কালোয় আসক্ত জয়া আহসান!

banglanewspaper

বয়স আর নিজের মাঝখানে অদৃশ্য এক দেয়াল তুলেছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। দিন-সপ্তাহ-মাস গড়িয়ে বছর যায়, তার রূপের নদীতে ভাটা আসে না। রূপের জোয়ারে ভক্তদের নিয়ম করে ভাসিয়ে নেন মুগ্ধতার মোহনায়।

রূপের ঝলকে অনুসারীদের ফের কুপোকাত করলেন জয়া আহসান। এবার সাদা-কালো ছবিতেই আগুন ধরালেন। ভক্তরা তাই ফায়ার সার্ভিসে অব্দি খবর দেয়ার দাবি তুলেছে।

রোববার (১৬ জানুয়ারি) ইনস্টাগ্রামে সাদা-কালো একটি ছবি শেয়ার করেন জয়া। এতে তার পরনে স্লিভলেস স্কিনফিট গাউন দেখা গেছে। একটি চেয়ারে হাত রেখে খানিকটা ঝুঁকে ক্যামেরায় পোজ দিয়েছেন অভিনেত্রী। খোলা চুল এলিয়ে পড়েছে বাঁ কাঁধে, আর জয়া তাকিয়েছেন বাঁকা চোখে।

একদিনে ছবিটিতে ৪৫ হাজারের বেশি রিঅ্যাকশন পড়েছে। হাজারো অনুসারী মন্তব্যও করেছেন। এক ভক্ত লিখেছেন, ‘আগুন! কেউ ফায়ার সার্ভিসে কল দাও’; আরেক অনুসারী জানতে চেয়েছেন, ‘বুড়া হবে কবে?’

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) আরও কয়েকটি ছবি আপলোড করেন জয়া। সেখানেও তাকে দেখা গেল কালো পোশাকে। এই পোস্টের ক্যাপশনে অভিনেত্রী জানালেন, তিনি কালো রঙে আসক্ত।

এদিকে জয়া বর্তমানে কলকাতায় রয়েছেন বলে জানা যায়। সেখানে তিনি সৌকর্য ঘোষালের পরিচালনায় ‘কালান্তর’ নামের একটি সিনেমার শুটিংয়ে ব্যস্ত। এ মাসের শেষ দিকে ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে তার।

কয়েকদিন দেশে থেকে আবারও ছুটে যাবেন কলকাতায়। কারণ ইতোমধ্যে সেখানে আরেকটি প্রজেক্ট প্রস্তুত। সেটার নাম ‘সাদা আমি কালো আমি’। সায়ন্তন মুখার্জির পরিচালনায় এটি একটি ওয়েব সিরিজ। এখানে জয়াকে দেখা যাবে ভারতের খ্যাতিমান অভিনেতা মনোজ বাজপায়ীর সঙ্গে। থাকবেন বাংলাদেশের চঞ্চল চৌধুরীও।

ট্যাগ:

বিনোদন
মিশা-জায়েদদের নিয়ে সমালোচনার কড়া জবাব রোজিনার

banglanewspaper

আগামী ২৮ জানুয়ারি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ১৭তম নির্বাচন। এবার দুটি প্যানেলের মধ্যে জমপেশ লড়াই হবে। একটি বিদায়ী কমিটির মিশা সওদাগর ও জায়েদ খানদের প্যানেল, অন্যটি ইলিয়াস কাঞ্চন ও চিত্রনায়িকা নিপুণদের। দুই প্যানেলেই রয়েছে একঝাঁক তারকা প্রার্থী।

আসন্ন নির্বাচনেও গত দুইবারের মতো যথাক্রমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে লড়বেন মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান। তারা গত দুই মেয়াদে দায়িত্ব পালন করেছেন। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে তারা সেই দায়িত্ব আনুষ্ঠানিকভাবে ছেড়ে দিয়েছেন এবং এফডিসিতে আয়োজিক সাধারণ সভায় বিদায়ী কমিটি তাদের বার্ষিক আয়-ব্যয়ের হিসাব এবং নানা কাজের ফিরিস্তি তুলে ধরেছেন।

মিশা-জায়েদ কমিটির নানা কাজের ভিড়ে সবচেয়ে বেশি আলোচনায় এসেছে করোনাকালীন সময়ে শিল্পীদের নানাভাবে সহায়তা দেওয়ার বিষয়টি। অনেকেই এটিকে ভিন্ন চোখে দেখছেন এবং ওই সমস্ত সহায়তামূলক কর্মকান্ডের প্রচারের বিষয়টি নিয়ে করছেন নানা প্রশ্ন। যা নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

এবার সেসব সমালোচনার জবাব দিলেন আশির দশকের দর্শকপ্রিয় নায়িকা রোজিনা। যিনি এবারের নির্বাচনে মিশা-জায়েদ প্যানেল থেকে কার্যনির্বাহী সদস্য পদে লড়ছেন। তার মতে, ‘কেউ যদি ভালো কাজ করে তার প্রচার অবশ্যই করতে হবে। কারণ, তা দেখে অন্যরা অনুপ্রাণিত হবে। যারা সমালোচনা করছেন, প্রচার না করলে আবার তারাই বলতেন, আমরা সব খেয়ে ফেলেছি, আত্মসাৎ করেছি৷ প্রচার করলেও দোষ আবার না করলেও দোষ।’

নায়িকা বলেন, ‘পুরো বিশ্ব ভালো কাজের প্রচার করে আসছে। যারা প্রচার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তারা হিংসা থেকে এগুলো বলেছেন৷ করোনার দুঃসময় যারা সহযোগিতা পেয়েছেন, আমার মনে হয় না তারা মিশা-জায়েদকে ছেড়ে যাবে। করোনা মহামারিতে স্বামী স্ত্রীকে ফেলে গেছে, সন্তান মাকে ফেলে গেছে। কিন্তু মিশা-জায়েদ কাউকে ফেলে যায়নি।’

অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘করোনায় আমাদের অনেক শিল্পী মারা গেছেন। নিজেদের জীবন ঝুঁকিতে ফেলে তাদের পাশে কিন্তু মিশা-জায়েদই ছুটে গেছেন। করোনা রোগীকে কাঁধে উঠিয়েছিলেন তারাই। অন্য কেউকে যেতে দেখিনি। এন্ড্রু কিশোর শিল্পী সমিতির সদস্য না। কিন্তু জায়েদ রাজশাহী ছুটে গিয়েছিল শিল্পীর প্রতি ভালোবাসা থেকে। করোনা মহামারির সময় যখন নিম্ন আয়ের শিল্পীরা কাজহীন, তখন শিল্পী সমিতি একাধিক বার তাদের সহায়তা করেছে।’

মিশা-জায়েদ প্যানেলের দুই মেয়াদের কাজের প্রশংসা করে রোজিনা বলেন, ‘চার বছর মিশা-জায়েদ নির্বাচিত হয়ে যেসব কাজ করেছে তা প্রশংসনীয়। তবে ভুল-ত্রুটি হতেই পারে। মানুষই ভুল করে। ছোট ছোট ভুল করলেও অধিকাংশ কাজই ভালো করেছেন তারা। জায়েদ চলচ্চিত্রকে ভালোবাসে। তার কোনো পিছুটান নেই। যার কারণে করোনার সময় নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে শিল্পীদের জন্য রাত-দিন কাজ করেছে। শিল্পের প্রতি ভালোবাসা না থাকলে এসব সম্ভব নয়।’

রোজিনা আরও বলেন, ‘নির্বাচন উপলক্ষে শুনেছি বিপরীত প্যানেলের কেউ কেউ বলেছেন, বিজয়ী হলে তারা সিনেমা বানাবেন। বিগত দিনে আমরা অনেক শিল্পীই সিনেমা প্রযোজনা করেছি। আমরা তো পদে এসে সিনেমা নির্মাণ করিনি। আমার যদি শিল্পের প্রতি ভালোবাসা থাকে তাহলে শিল্পী সমিতিতে এসে সিনেমা নির্মাণ করব কেন? নিজে প্রযোজনা করে কাজ করতে পারি না? আবার বলেছেন- জয়ী হলে সরকারের সহযোগিতা নিয়ে সিনেমা করবে। শিল্পের প্রতি ভালোবাসা থাকলে পদে না এসেও এসব কাজ করা যায়৷ চেয়ারে বসে করবে এসব কথার মানে নেই। আমি যদি চলচ্চিত্রকে ভালোবাসি, সহযোগিতা করতে চাই তাহলে পদে না থেকেও করা যায়। তার জন্য গদিতে বসার দরকার হয় না৷’

শিল্পী সমিতি হলো শিল্পীদের জন্য। এটি সিনেমা নির্মাণের জন্য না বলে উল্লেখ করেন রোজিনা। বলেন, ‘সিনেমা নির্মাণ করা শিল্পীদের কাজ নয়। তবে যাদের অর্থ আছে তারা সিনেমা বানাবেন। তার জন্য শিল্পী সমিতির দরকার হয় না। শিল্পী সমিতি হচ্ছে শিল্পীদের সেবা করার জন্য৷ কেউ যদি মনে করেন সবাই মিলে সিনেমা নির্মাণ করবেন সেটি ভিন্ন বিষয়। তার সাথে শিল্পী সমিতির সম্পর্ক নেই৷’

ট্যাগ:

বিনোদন
শ্রাবন্তীর গোসলের ছবি ভাইরাল, নেটপাড়ায় হইচই

banglanewspaper

ওপার বাংলার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় আর বিতর্ক পরস্পরের পরিপূরক। সেই বিতর্কের আগুনে ঘি মাঝেমধ্যে নায়িকা নিজেও ঢেলে দেন। অভিনেত্রীর তিনটা ভাঙা বিয়ে, নতুন প্রেমের চর্চা, ব্যর্থ রাজনৈতিক ক্যারিয়ার, মাস কয়েকের মধ্যে বিজেপিতে মোহভঙ্গ, ফের তৃণমূল ঘনিষ্ঠ হওয়া- এই নিয়ে লাগাতার আলোচনা-সমালোচনা চলতেই থাকে।

কিন্তু কোনো বিতর্ক নিয়েই মাথা ঘামাতে রাজি নন শ্রাবন্তী। তারই মাঝে ফ্যানদের চমকে দিলেন তিনি। রবিবার বাথটবে শুয়ে একটি ছবি পোস্ট করেন অভিনেত্রী। গা ভর্তি ফেনা, আবক্ষ পানিতে শুয়ে রয়েছেন শ্রাবন্তী। তার বাঁকা চাউনি ধুকপুকানি বাড়াল ভক্ত মনের।

ছবির ক্যাপশনে অভিনেত্রী লিখেছেন, ‘ফ্রেশ মর্নিং’। তবে মাঘের সকালে শ্রাবন্তীর এই গোসলের ছবি দেখে হাঁ ফ্যানরা। কেউ কেউ লিখেছেন, ‘বাবা এতো সকালে গোসল, তোমাকে দেখে আমার ঠাণ্ডা লাগছে’। কেউ কেউ আবার দুষ্টুমিতে ভরা মন্তব্য করেছেন, ‘একটু ফেনাটা সরাও না’।

যদিও কোনো মন্তব্যেরই জবাব দেননি নায়িকা। এই মুহূর্তে নবাগত পরিচালক অয়ন দে’র ‘ভয় পেও না’ ছবির শ্যুটিং নিয়ে ব্যস্ত তিনি। এই ছবিতে শ্রাবন্তীর নায়ক ওম সাহানি। ছবির শ্যুটিং সেট থেকে একাধিক ভিডিও, ছবি পোস্ট করেই চলেছেন নায়িকা।

এছাড়া শ্রাবন্তীর হাতে রয়েছে ‘খেলাঘর’। এই ছবিতে ফের একবার দেবের সঙ্গে অভিনয় করবেন তিনি। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে শ্রাবন্তীর ‘কাবেবী অন্তর্ধান’ও। এই ছবিতে তিনি প্রসেনজিতের নায়িকা।

ট্যাগ:

বিনোদন
চিত্রনায়িকা শিমুর বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার

banglanewspaper

কেরানীগঞ্জ থেকে চিত্রনায়িকা রাইমা ইসলাম শিমুর (৩৫) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার মরদেহ উদ্ধার করে ঢাকায় স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ (মিটফোর্ড) হাসপাতালে মর্গে রাখা হয়েছে।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে কেরানীগঞ্জের হযরতপুর ব্রিজের কাছে তার বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করে কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ। কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবু সালাম মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, সকাল ১০টার দিকে কেরানীগঞ্জ থেকে রাইমা ইসলাম শিমুর নামে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য তার মরদেহ মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে নায়িকা সাদিয়া মির্জা বলেন, কেরানীগঞ্জ থানার ওসি জানিয়েছেন শিমু আপার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এখনো জানা যায়নি। শিমু আপা রোববার সকাল ১০টা থেকে আজ পর্যন্ত নিখোঁজ ছিলেন।

ট্যাগ: