banglanewspaper

মিয়ানমারে সেনাঅভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে চলমান বিক্ষোভে প্রাণহানি নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছে দেশটির সেনাবাহিনী। তবে বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে সম্পত্তির ব্যাপক ধ্বংস ও সহিংসতার অভিযোগ তোলা হয়েছে। দেশটিতে বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত পুলিশের গুলিতে এখন পর্যন্ত ১৬৪ বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন।
 
মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে মিয়ানমার সেনাবাহিনী মুখপাত্র জাউ মিন তুন বলেন, ‘‘যারা প্রাণ হারিয়েছেন তাদের জন্য আমি অন্তর থেকে দুঃখ প্রকাশ করছি। তারাও আমাদের দেশের নাগরিক ছিলেন।”
 
এছাড়া বিক্ষোভে নয় পুলিশ সদস্যও নিহত হয়েছেন বলে বিশেষভাবে উল্লেখ করেন তিনি।
 
জাউ মিন তুন এটাও বলেন, ধর্মঘটে হাসপাতালগুলো চিকিৎসাসেবা পুরোপুরি পরিচালনা করতে পারছে না। এ কারণে কভিড-১৯ এর মতো মৃত্যু ঘটছে। এসময় ‘বিক্ষোভ বিষয়টিকে তিনি অপ্রয়োজনীয় এবং অনৈতিক’ বলে অভিহিত করেছেন।
 
দেশটির সেনাবাহিনী গত ১ ফেব্রুয়ারি অভ্যুত্থানের মাধ্যমে নির্বাচিত সরকারকে হটিয়ে মিয়ানমারের ক্ষমতা দখল করে। তারপর থেকেই দেশটিতে অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে গণতন্ত্রপন্থিদের বিক্ষোভ চলছে। বিক্ষোভ দমনে পুলিশও গুলি ছুড়ছে।
 
আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে নানা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে মিয়ানমারের জান্তাবাহিনীকে ক্ষমতা ছেড়ে দিতে চাপে ফেলার চেষ্টা করা হচ্ছে।
 
এদিকে জান্তাবাহিনী দেশজুড়ে চলমান বিশৃঙ্খলার জন্য বিক্ষোভকারীদের দায়ী করছে। বলছে, অভ্যুত্থান বিরোধী বিক্ষোভকারীরাই দেশজুড়ে বিশৃঙ্খখার সৃষ্টি এবং সম্পদের ক্ষয়ক্ষতি করছে।

ট্যাগ: bdnewshour24