banglanewspaper

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল আর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ উপলক্ষে প্রায় চার মাসের সফরে ইংল্যান্ডে যাবে ভারতীয় দল। করোনার কারণে কেউ ঘর থেকে বাইরে বের হতে পারবেন না। থাকতে হবে জৈব সুরক্ষা বলয়ে। ইংল্যান্ড সফরে খুব কঠিন জীবন কাটাতে হবে কোহলিদের। এমতাবস্থায় তারা যাতে একাকীত্বে না ভোগেন, তার ব্যবস্থা করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। ইংল্যান্ড সফরে কোহলিদের নিজ নিজ স্ত্রী-সঙ্গীনীদের নিয়ে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

১৮ জুন থেকে সাদাম্পটনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলবে ভারত। ওই ফাইনাল শেষে আবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শুরু হবে ৫ টেস্টের সিরিজ। প্রায় সাড়ে ৩ মাস ক্রিকেটাররা দেশের বাইরে থাকবেন বলেই পরিবারকে সঙ্গে রাখার অনুমতি দিয়েছে বিসিসিআই। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ফাইনাল শেষ হলে ৪ আগস্ট থেকে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট খেলবে ভারত। পাঁচ টেস্টের এই লম্বা সিরিজ শেষ হবে ১৪ সেপ্টেম্বর।

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল শেষ হবে ২২ জুন। তারপর কোহলিদের দেশে ফেরার সুযোগ নেই। প্রায় দেড় মাস পর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ। ইংল্যান্ডেই থাকতে হবে ভারতীয় দলকে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও চায় না এই করোনা আবহের মধ্যে ক্রিকেটারদের বারবার বিমান যাত্রার ধকল দিতে। দেড়মাস ক্রিকেটের মধ্যে না থাকলে কিংবা পরিবার সঙ্গে না থাকলে ক্রিকেটাররা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হতে পারে। তাই ক্রিকেটারদের পরিবারকে সঙ্গে রাখার অনুমতি দিয়েছে। তবে ক্রিকেটাররা হোটেলের বাইরে বের হতে পারবেন না।

এদিকে, বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলতে নামার আগে ভারতীয় দলকে দু’দফায় ১৮ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। ইংল্যান্ড উড়ে যাওয়ার আগে দেশে ৮ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকবেন বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মারা। ইংল্যান্ডে গিয়ে আরও ১০ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকবে। তবে ইংল্যান্ডে কোয়ারেন্টিনে থাকার সময় কোহলিরা অনুশীলন করতে পারবেন। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড এই ব্যাপারে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের অনুমতি আদায় করে নিয়েছে। ২৫ মে থেকে ভারতীয় দল মুম্বাইয়ের একটি হোটেলে কোয়ারেন্টিনে থাকবে। এই সময় বারবার সবার করোনা পরীক্ষা করা হবে। নেগেটিভ হওয়া ক্রিকেটাররা ১ জুন ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্য উড়াল দেবেন।

ট্যাগ: bdnewshour24