banglanewspaper

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলেও তিনি ঝুঁকিমুক্ত নন। চিকিৎসকরা বলছেন, তিনি করোনামুক্ত হলেও এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর শারীরিক নানা জটিলতা দেখা দেয়। খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রেও কভিড-পরবর্তী জটিলতা দেখা দিয়েছে। এ কারণে তাঁর শারীরিক অবস্থা নিয়ে শঙ্কা রয়েই গেছে।

চিকিৎসকরা বলছেন, খালেদা জিয়ার শরীরে করোনা-পরবর্তী কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছিল। এখন দিনে তাঁর দুই-তিন লিটার অক্সিজেন লাগছে। রক্ত দেওয়ায় হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কিছুটা বেড়েছে। এখন তিনি স্বাভাবিক খাবার খাচ্ছেন। তাঁর ফুসফুস থেকে তরলজাতীয় পদার্থ (ফ্লুইড) দুই দফা অপসারণ করা হয়। ডায়াবেটিস এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি। 

খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন সোমবার বলেন, ‘ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) মতো এত বয়সের রোগীর করোনা-পরবর্তী সময়েও নানা জটিলতা দেখা দেয়। ম্যাডামের ক্ষেত্রেও তা-ই হয়েছে। তাছাড়া ম্যাডামের আগে থেকেই বেশ কিছু রোগ আছে। জেলখানায় যাওয়ার পর সেগুলো আরো বেড়েছে। সব মিলিয়ে ম্যাডামের শারীরিক অবস্থা ভালো বলা যাবে না।’

ট্যাগ: bdnewshour24