banglanewspaper

অবশেষে জামিন পেলেন বিতর্কিত অভিনেত্রী ও মডেল রোমানা স্বর্ণা। সৌদি প্রবাসী কামরুল হাসানের করা প্রতারণা মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে জেলে যেতে হয়েছিল তাকে। সেই বাদীর জিম্মায়ই শনিবার স্বর্ণাকে জামিন দিয়েছেন ঢাকা মহানগর হাকিম মাসুদুর রহমান।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন মোহাম্মদপুর থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা ও পুলিশের উপ-পরিদর্শক মনিরুজ্জামান মণ্ডল। তিনি জানান, মডেল স্বর্ণার কথিত স্বামী এবং মামলার বাদী কামরুল ইসলাম নিজেই ঈদের আগে তার জামিন আবেদন করেছিলেন। শনিবার শুনানি শেষে আদালত তা মঞ্জুর করেছেন।


প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে গত ১১ মার্চ স্বর্ণার বিরুদ্ধে মামলা করেন সৌদি প্রবাসী কামরুল হাসান। পরদিন সন্ধ্যায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরের লালমাটিয়া এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় অভিনেত্রী রোমানা স্বর্ণাকে। এরপর স্বর্ণার প্রাথমিক স্বীকারোক্তির সূত্র ধরে তার মা শেইলী ও ছেলে আন্নাফিসহ মোট পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। স্বর্ণা জামিন পেলেও অন্যরা এখনো জেলে রয়েছেন।

এর আগে গত ২০ এপ্রিল মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে আসামি স্বর্ণাকে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদের আদালত তার এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড শেষে গত ২৬ এপ্রিল স্বর্ণাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয় আদালত।

মামলার সময় বাদী কামরুল হাসান তা অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেন, ২০১৮ সালে অভিনেত্রী স্বর্ণার সঙ্গে ফেসবুকের মাধ্যমে তার পরিচয় হয়। দিনে দিনে সখ্যতা বাড়ে। ২০১৯ সালের মার্চে তিনি সৌদি আরব থেকে দেশে আসেন। এরপর স্বর্ণা তাকে বাসায় আমন্ত্রণ করেন। সেখানে গেলে তাকে খাবারের সঙ্গে চেতনাশক ওষুধ খাইয়ে অজ্ঞান করা হয়।

এর পরই রোমানা স্বর্ণা তার সঙ্গে আপত্তিকর কিছু ছবি তোলেন। যে সবের কিছুই তিনি জানেন না। পরে সে সব ছবি দেখিয়ে তাকে বিয়ের জন্য চাপ দেন স্বর্ণা। বিয়ে না করলে ছবিগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়া হয় তাকে। কামরুল হাসান জানান, ‘সম্মানহানির ভয়ে ২০১৯ সালের মার্চেই স্বর্ণাকে বিয়ে করেছিলাম।’

বিয়ের পর সৌদি ফিরে যান কামরুল হাসান। এরপর গাড়ি, ব্যবসা ও ফ্ল্যাট কেনাসহ নানা অজুহাতে কয়েক ধাপে তার কাছ থেকে এক কোটি ৪৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা নেন স্বর্ণা। স্ত্রী হিসেবে তিনি টাকাগুলো দেন। কিন্তু পরবর্তীতে তিনি দেশে এসে স্বর্ণার বাসায় গেলে অভিনেত্রী জানিয়ে দেন, তাকে অনেক আগেই তালাক দিয়েছেন। এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়।

ব্যাস, এর পরই বিষয়টি মোহাম্মদপুর থানাকে অবহিত করেন সৌদি প্রবাসী কামরুল হাসান এবং অভিনেত্রী রোমানা স্বর্ণার নামে প্রতারণার একটি মামলাও করেন। তার পরই গত ১১ মার্চ সন্ধ্যায় গ্রেপ্তার হন স্বর্ণা।

জানা গেছে, এই অভিনেত্রী আগেও কয়েকটি বিয়ে করেছেন। অনেকের সঙ্গেই নাকি তিনি একই ভাবে প্রতারণা করেছেন এবং লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। বহু বিবাহিতা রোমানা স্বর্ণার আন্নাফি নামে ২৪ বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তানও রয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24